অবসরে যাওয়ার ঘোষণা দিলেন অর্থমন্ত্রী

অবসরে যাওয়ার ঘোষণা দিলেন অর্থমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জানিয়েছেন এ বছরের ডিসেম্বরেই অবসরে যাবেন তিনি। শনিবার রাজধানীর হোটেল লা মেরিডিয়ানে অগ্রণী ব্যাংকের বার্ষিক ব্যবসায়িক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

দেশে অনেকগুলো ব্যাংক থাকলেও খাতটি সেভাবে প্রসারিত নয় বলে মনে করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এ অবস্থায় দেশের ব্যাংকগুলোর শাখা বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন তিনি।

অর্থমন্ত্রী বলেন, দেশের আর্থিক খাতের স্বাস্থ্যটা ভালো কিনা- সে ব্যাপারে অনেকেরই প্রশ্ন আছে। ব্যাংক নিয়ে আলোচনা করতে গেলে অনেক কিছু বলা যেতে পারে। কারণ আমাদের দেশে যদিও অনেকগুলো ব্যাংক রয়েছে। তবুও দেশে ব্যাংকিং সার্ভিস তত প্রসারিত হয়নি। এ অবস্থায় ব্যাংকের শাখা আরও বাড়ানো উচিত। যত বেশি মানুষ ব্যাংকিং খাতে আসবে আর্থিক কর্মকাণ্ড অনেক তত শক্তিশালি হবে। সে কাজটা যত শক্তিশালী হয়, ততই দেশের উন্নয়ন দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাবে।

ব্যাংকিং সেবা প্রদানে দুইটি বিষয়ে খেয়াল রাখার পরামর্শ দিয়ে মুহিত বলেন, আপনারা দুটি কাজ করবেন, আর আমার মনে হয় এটাই যথেষ্ট। প্রথম, একটি প্রকল্প যখন আপনার কাছে আসবে, সেটা যথাযথ যাচাই করবেন। বিশ্লেষণটা যতদুর সম্ভব ভালো করা দরকার। সেজন্য বিশেষজ্ঞ তৈরি করুন।

দ্বিতীয়ত,ব্যাংকারের জন্য প্রধান মূলমন্ত্র। সেটা হচ্ছে-কেওয়াইসি (গ্রাহকের পূর্ণাঙ্গ পরিচিতি)। আপনি কাকে সেবা দিচ্ছেন, কে আপনার সেবা নিচ্ছে। সে লোক বা প্রতিষ্ঠানটিকে আপনি চিনতে চেষ্টা করুন। সেই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে আত্মার সর্ম্পক সৃষ্টি করেন।  সেখান থেকে আপনি যেমন সমৃদ্ধি হবেন, তেমনি ঐ প্রতিষ্ঠান সমৃদ্ধ হবে। এই সমৃদ্ধি জাতীয় সমৃদ্ধিতে ব্যাপক অবদান রাখবে।

এ সময় এ দুইটি পরামর্শ মেনে চলতে ব্যাংকারদের আহবান জানান অর্থমন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে অর্থ  ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির, ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সিনিয়র সচিব ইউনুসুর রহমান, অগ্রণী ব্যাংকের চেয়ারম্যান ড. জায়েদ বখত, এমডি শাসমুল ইসলামসহ ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
নিজস্ব প্রতিবেদক