অ্যাডিলেডেও ইনিংস ব্যবধানে জয় অস্ট্রেলিয়ার

অ্যাডিলেডেও ইনিংস ব্যবধানে জয় অস্ট্রেলিয়ার

অ্যাডেলেডে দিবা-রাত্রির টেস্টেও বদলায়নি পাকিস্তানের ভাগ্য। দুই টেস্টের সিরিজে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ইনিংস ব্যবধানে হেরেছে পাকিস্তান। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দ্বিতীয় এই টেস্টে তারা হেরেছে ইনিংস ও ৪৮ রানে।

গতকাল ফলোঅন করতে নেমে ধুঁকছিল পাকিস্তান। ৩৯ রানে হারায় ৩ উইকেট। দিনের শুরুতে শান মাসুদ ও আসাদ শফিকের জুটিটি ছিল একমাত্র প্রতিরোধ গড়া। সর্বোচ্চ ১০৩ রান আসে এই জুটি থেকে। শান মাসুদ ৬৮ রান করে ফেরার পর আসাদ শফিকের প্রতিরোধ ভেঙে পড়ে ব্যক্তিগত ৫৭ রানে। মাঝের দিকে মোহাম্মদ রিজওয়ান উল্লেখযোগ্য ৪৫ রান করলেও লম্বা ইনিংস উপহার দিতে পারেনি আর কেউ। ডিনার ব্রেকের পর শেষ দুই উইকেট পড়লে পাকিস্তান গুটিয়ে যায় ২৩৯ রানে।

পাকিস্তানকে গুটিয়ে দিতে তাদের বিপক্ষে এই প্রথম ৫ উইকেট শিকারের কীর্তি গড়লেন স্পিনার নাথান লায়ন। তিনটি নিয়েছেন জশ হ্যাজেলউড। ম্যাচ ও সিরিজ সেরা ডেভিড ওয়ার্নার।

টস জিতে ব্যাট করতে নেমে অস্ট্রেলিয়া তিন উইকেটে ৫৮৯ রানে ইনিংসের সমাপ্তি ঘোষণা করেছিল। ওয়ার্নার অপরাজিত ছিলেন ৩৩৫ রানে। লাবুশানে করেছিলেন ১৬২। জবাবে পাকিস্তানের প্রথম ইনিংস শেষ হয় ৩০২ রানে। ইয়াসির খান (১১৩), বাবর আজম (৯৭) রান পেলেও বাকিরা হতাশ করেন। ছয় উইকেট নিয়েছিলেন বাঁ-হাতি পেসার মিচেল স্টার্ক। তিন উইকেট নিয়েছিলেন প্যাট কামিনস।

ফলো অনের পর ব্যাট করতে নেমে ৮২ ওভারে ২৩৯ রানে শেষ হয় পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংস। শান মাসুদ (৬৮), আসাদ শফিক (৫৭), মহম্মদ রিজওয়ান (৪৫) ছাড়া কেউ রান পাননি। সোমবার পাকিস্তানের সাতটির মধ্যে পাঁচটি উইকেটই নেন লিয়ন। পাকিস্তানের শেষ উইকেট পড়ে প্যাট কামিংসের সরাসরি থ্রোয়ে মহম্মদ আব্বাসের রান আউটের মাধ্যমে। তার পরই অ্যাডিলেডে উৎসবে মেতে ওঠে টিম পেনের দল।

পাকিস্তান এই নিয়ে অস্ট্রেলিয়ায় টানা ১৪ টেস্ট হারল। এর আগে ১৯৯৯, ২০০৪, ২০০৯, ২০১৬ সালে তিন টেস্টেই হেরেছিল পাকিস্তান। এবার হারল দুই টেস্টেই। অস্ট্রেলিয়ায় টানা এতগুলো টেস্টে এর আগে কোনও দল হারেনি। ১৯৪৮ থেকে ১৯৭৭ সাল পর্যন্ত ভারত টানা ৯ টেস্টে হেরেছিল। ২০০০ থেকে ২০০৯ সাল পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজও টানা নয় টেস্টে হেরেছিল।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট