আইপিএলে কোহলিদের গুরু ক্যাটিচ-হেসন

আইপিএলে কোহলিদের গুরু ক্যাটিচ-হেসন

বড় অফারই খুঁজছিলেন নিউজিল্যান্ডের সাবেক হেড কোচ মাইক হেসন। ২০১৫ বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো নিউজিল্যান্ডকে ফাইনালে তুলেছেন বলেই তার চাহিদাটা ছিল অনেক। ভারতের ক্রিকেট কোচদের শর্ট লিস্টে রবি শাস্ত্রীর সাথে ছিল তার নাম।

ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) এবং পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের(পিসিবি) আগ্রহ। বড় অফারের জন্য ছেড়ে দিয়েছিলেন আইপিএলের দল রাজস্থান রয়েলসের কোচের দায়িত্ব। লক্ষ্যটা ছিল ভারতের কোচ-এর দিকে। দিয়েছিলেন মুম্বাইয়ে ইন্টারভিউ।

তবে রবি শাস্ত্রীর উপর ভারতীয় বোর্ড আস্থা রাখায় আর কোন জাতীয় দলের কোচের অফারে প্রলুদ্ধ হননি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সামনে আসেননি ইন্টারভিউ দিতে। পিসিবি’র অফার করেছেন প্রত্যাখান। শেষ পর্যন্ত বিরাচ কোহলির দল রয়েল চ্যালেঞ্জার বেঙ্গালুরুর অফার নিয়েছেন লুফে।

তবে কিউই মাইক হেসনের জন্য বড় ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছে রয়েল চ্যালেঞ্জার বেঙ্গালুরুকে। আইপিএলের গত আসরে এই ফ্রাঞ্চাইজি ৬ষ্ঠ হওয়ায় কোপ পড়েছে ২০১১ বিশ্বকাপে ট্রফি জয়ী ভারতের কোচ গ্যারি কারস্টেনের উপর। বোলিং কোচ আশিষ নেহরাকেও হারাতে হয়েছে কারস্টেন সঙ্গে চাকুরি। মাইক হেসনকে এই ফ্রাঞ্চাইজি কোচের চেয়েও বড় দায়িত্ব দিয়েছে। তার জন্য তৈরি করতে হয়েছে বিশেষ পদ। পদটির নাম ডিরেক্টর ক্রিকেট অপারেশন্স।

 কে কে আর এর সহকারী কোচ সায়মন ক্যাটিচকে ছুটিয়ে এনে তাকে দেয়া হয়েছে  হেড কোচ-এর দায়িত্ব। সায়মন ক্যাটিচ, কোচিং স্টাফ-সবার বস এখন থেকে হেসন। দলটির স্ট্র্যাচেজী,প্রোগ্রাম,ক্রিকেটার বাছাই এবং পারফরমেন্স ম্যানেজমেন্ট-সব দায়িত্ব মাইক হেসনকে দিয়েছে রয়েল চ্যালেঞ্জার বেঙ্গালুরু। দলটির ক্রিকেটার এবং কোচিং স্টাফের সঙ্গে খুব কাছ থেকে দেখভাল করবেন হেসন ! বলতে পারেন, কোচদের কোচ, গুরুদের গুরু !

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট