আইপিএলে বাজি ধরে নিজের স্ত্রীকে হারালেন ব্যবসায়ী

আইপিএলে বাজি ধরে নিজের স্ত্রীকে হারালেন ব্যবসায়ী

আইপিএলে বাজির খবর হরহামেশাই আসে। এবার এলো আরো চমকপ্রদ খবর। ভারতের উত্তর প্রদেশের এক ব্যবসায়ী আইপিএল খেলায় বাজি ধরে হারিয়েছেন তার স্ত্রীকে।

যারা মহাভারত পড়েছেন তারা হয়তো জানেন পাশাখেলায় কৌরবদের বিরুদ্ধে একে একে সবকিছু হেরে সর্বস্বান্ত হয়েছিলেন ধর্মরাজ যুধিষ্ঠির। শেষ বাজিটা ছিলেন নিজের স্ত্রী দ্রৌপদী। সবশেষে তাকেও তুলে দিতে হয়েছিল দুর্যোধন-দুঃশাসনদের হাতে। ভরা সভার মধ্যেই চলেছিল পাঞ্চালির বস্ত্রহরণ। নেহাত, সেই যাত্রায় কৃষ্ণ এসে দ্রৌপদীর সম্মান রক্ষা করেছিলেন।

তবে  অধুনা ভারতে কোনও কৃষ্ণের সাহায্য পাননি কানপুরের এই মহিলা। আইপিএল-এর বাজিতে হেরে নিজের স্ত্রীকে স্বামী তুলে দেয় অন্য এক পুরুষের হাতে।

পুলিশের তথ্যানুযায়ী, ইতিপূর্বে শেয়ার মার্কেটে সর্বস্ব খুইয়ে বসেছিল ওই ব্যক্তি। আশা ছিল, আইপিএল-এর বেটিংয়ে কিছুটা আর্থিক সুরাহার মুখ দেখতে পাবে।  আর সেইকারণেই নিজের স্ত্রীকে শেষ বাজি রেখেছিল সে। কিন্তু, তা আর হল কই! সেখানেও শেষরক্ষা হল না। অবশেষে স্ত্রীকে নিজের হাতেই তুলে দেয় অন্য এক পুরুষের হাতে। এরপর থেকে শুরু হয় অকথ্য নির্যাতনের নির্মম কাহিনী।

বেশ কয়েকদিন ধরে চলে এমন অত্যাচার। অবশেষে হালকা আশার আলো দেখতে পান ওই মহিলা। এক ব্যক্তির সহযোগিতায় ছুটে যান স্থানীয় গোবিন্দনগর থানায়। সেখানেই দায়ের করেন অভিযোগ।

পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনাটি সত্যিই একটি ন্যক্কারজনক ঘটনা। ওই মহিলার থেকে অভিযোগ পেয়ে গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছে তারা।

সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, পাঁচ বছর আগে ওই দম্পতির বিবাহ হয়। কিন্তু প্রথম দিন থেকেই তাদের সংসারে অশান্তি লেগেই থাকত। মহিলার অভিযোগ, ফুলশয্যার রাতেই নাকি ওই ব্যক্তি মহিলার কাছ থেকে সমস্ত গয়না কেড়ে নিতে চেয়েছিল। এরপর ধীরে ধীরে ওই ব্যক্তির কুকীর্তির কথা মহিলা জানতে পারে। মদ্যপান থেকে জুয়া কিছুই বাদ ছিল না। অভিযোগ, বছরের পর বছর ধরে ঘরের প্রত্যেকটা জিনিসই সে জুয়ায় হারিয়ে এসেছে।

এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, “বর্তমানে ওই ব্যক্তি নিজের বাড়িটাই বিক্রি করে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছিল। কিন্তু পরিস্থিতি জটিল হয়ে ওঠায়, অবশেষে নিজের স্ত্রীকেই বাজি হিসেবে রাখে সে।”

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট