আইসিসি টেস্ট র‌্যাঙ্কিং-র শীর্ষেই বিরাট, দু’ইয়ে স্মিথ, তিনে উইলিয়ামসন

আইসিসি টেস্ট র‌্যাঙ্কিং-র শীর্ষেই বিরাট, দু’ইয়ে স্মিথ, তিনে উইলিয়ামসন

এজবাস্টন টেস্টের পর প্রকাশিত র‍্যাঙ্কিংয়ে স্টিভ স্মিথ পেছনে ফেলেছিলেন ভারতের চেতেশ্বর পুজারাকে। এক ধাপ এগিয়ে দখল করেছিলেন তিন নম্বর স্থান। লর্ডস টেস্টের পর আরও এক ধাপ উপরে উঠেছেন এই অস্ট্রেলিয়ান তারকা ব্যাটসম্যান। তিনি টপকে গেছেন নিউজিল্যান্ডের দলনেতা কেন উইলিয়ামসনকে। তার ওপরে আছেন কেবল ভারতের ব্যাটিং বিস্ময় বিরাট কোহলি।

রবিবার (১৮ অগাস্ট) সবশেষ প্রকাশিত আইসিসি টেস্ট ব্যাটসম্যানদের র‍্যাঙ্কিংয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন স্মিথ। তার রেটিং পয়েন্ট ৯১৩, লর্ডস টেস্টের আগে যা ছিল ৯০৩। শীর্ষে থাকা কোহলির চেয়ে মাত্র ৯ পয়েন্টে পিছিয়ে আছেন সাবেক অসি অধিনায়ক।

১৬ মাস পর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অ্যাশেজ সিরিজ দিয়ে সাদা পোশাকের ক্রিকেটে ফিরেছেন ৩২ বছর বয়সী স্মিথ। এজবাস্টনে প্রথম টেস্টে করেছিলেন জোড়া সেঞ্চুরি। প্রথম ইনিংসে ১৪৪ রানের পর দ্বিতীয় ইনিংসে তার ব্যাট থেকে এসেছিল ১৪২। লর্ডসেও একই রকম ছন্দে ছিলেন তিনি। খেলেন ৯২ রানের দারুণ এক ইনিংস। দ্বিতীয় ইনিংসে অবশ্য ব্যাটিং করেননি তিনি। কারণ প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ের সময় জোফরা আর্চারের বলে মাথায় আঘাত পেয়েছিলেন তিনি। তাই সতর্কতা হিসেবে তাকে আর খেলানো হয়নি।

অন্যদিকে, শ্রীলঙ্কা সফরের প্রথম টেস্টে গলে কিউই তারকা উইলিয়ামসন নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। দুই ইনিংসে করেন যথাক্রমে ০ ও ৪। এই ব্যর্থতার ফলে এক ধাপ পিছিয়ে তিন নম্বরে নেমে গেছেন তিনি। তার রেটিং পয়েন্ট ৮৮৭।

বড় লাফ দিয়েছেন লঙ্কান অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দলের ৬ উইকেটের জয়ের ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসে ১২২ রান করেন তিনি। ফলে করুনারত্নে সেরা দশে ঢুকে গেছেন। স্থান করে নিয়েছেন আট নম্বরে, যা তার সাত বছরের টেস্ট ক্যারিয়ারের সেরা র‍্যাঙ্কিং।

লর্ডস টেস্টে হাসেনি ডেভিড ওয়ার্নারের ব্যাট। তিনি নেমে গেছেন চার ধাপ (১১তম)। একই অবস্থা উসমান খাওয়াজা ও ক্যামেরন ব্যানক্রফটেরও। তারা দুজনেই পাঁচ ধাপ করে পিছিয়েছেন। খাওয়াজা ২০তম ও ব্যানক্রফট যৌথভাবে ৮৫তম অবস্থানে আছেন। তবে এগিয়েছেন মারনাস লেবুশান। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম ‘কনকাশন’ বদলি খেলোয়াড় হিসেবে স্মিথের পরিবর্তে মাঠে নামেন তিনি। খেলেন ৫৯ রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস। ফলে ১৬ ধাপ এগিয়ে ৮২ নম্বরে রয়েছেন তিনি।

টেস্ট বোলারদের র‍্যাঙ্কিংয়ে যথারীতি শীর্ষে আছেন অসি পেসার প্যাট কামিন্স। তিনি অর্জন করেছেন ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ ৯১৪ রেটিং পয়েন্ট। লর্ডসে ৬ উইকেট দখল করেন তিনি। পাঁচ টেস্টের অ্যাশেজ সিরিজের দুটি শেষে ১৩ উইকেট নিয়ে তিনিই সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি।

ক্রিকেটের তীর্থভূমি খ্যাত লর্ডসেই টেস্ট অভিষেক হয়েছে ইংল্যান্ডের নতুন তারকা পেসার আর্চারের। দুই ইনিংস মিলিয়ে ৯১ রানে ৫ উইকেট নিয়ে র‍্যাঙ্কিংয়ের ৮৩ নম্বরে জায়গা পেয়েছেন তিনি। তার সতীর্থ স্পিনার জ্যাক লিচ আট ধাপ এগিয়ে উঠেছেন ৪০ নম্বরে।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট