আত্মহত্যা করলেন লিনকিন পার্কের গায়ক

আত্মহত্যা করলেন লিনকিন পার্কের গায়ক

 

যে গলায় রয়েছে দেবদূতের কোমলতা ও দানবীয় চিৎকার করার ক্ষমতা, সেই গলাতেই ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করলেন লিনকিন পার্কের গায়ক চেস্টার বেনিংটন।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় লস অ্যাঞ্জেলসের নিজ ফ্ল্যাটে ঝুলন্ত অবস্থায় তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

বেনিংটনের আত্মহত্যার সময় তার পরিবারের সদস্যরা বাইরে ছিলেন। পুরো ঘটনা তদন্ত করে দেখছেন লস অ্যাঞ্জেলস পুলিশ।

বিশ্বের বিভিন্ন শহরে লিনকিন পার্ক ব্যান্ডের নতুন অ্যালবাম ‘ওয়ান মোর লাইট’ গানের প্রদর্শনী নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছিলেন তিনি। আসছে ২৭ জুলাই ম্যাসাচুসেটস অঙ্গরাজ্যের মেনসফিল্ড শহরে ওই গানের প্রদর্শনী শেষ হওয়ার কথা ছিল।

চেস্টার বেনিংটন জনপ্রিয়তা লাভ করেন ২০০০ সালে লিনকিন পার্কের প্রথম অ্যালবাম ‘হাইব্রিড থিওরিতে’ ভোকাল হিসেবে গান গাওয়ার মাধ্যমে। অ্যালবামটি ব্যাপক সফলতা পায়। লিনকিন পার্কের পরবর্তী স্টুডিও অ্যালবামগুলো হলো মীটিওরা (২০০৩), মিনিটস টু মিডনাইট (২০০৭), এ থাউজ্যান্ড সানস (২০১০) ও লিভিং থিংস (২০১২)।

জগতবিখ্যাত এ গায়ক সাইড প্রজেক্ট হিসেবে ২০০৫ সালে ব্যান্ড ‘ডেড বাই সানরাইজ’ গড়ে তোলেন। এ ব্যান্ডের প্রথম অ্যালবাম ‘আউট অব অ্যাশেজ’ ২০০৯ সালের অক্টোবরের ১৩ তারিখে প্রকাশ পায়। বেনিংটনকে শ্রেষ্ঠ ১০০ হেভি মেটাল ভোকালিস্ট’র তালিকায় স্থান দেয় হিট প্যারাডার।

চেস্টার চার্লস বেনিংটন ১৯৭৬ সালের ২০ মার্চ জন্ম নেন। তিনি দু’স্ত্রী এবং ৬ সন্তান রেখে গেছেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট