আপনার জন্য ওপেন রিলেশনের ভালো-মন্দ

আপনার জন্য ওপেন রিলেশনের ভালো-মন্দ

আপনারা লক্ষ্য করলে দেখবেন ফেসবুকের স্টেটাস অপশনে ওপেন রিলেশনশিপ  বলে একটা অপশন দেখা যায়। যাঁরা একাধিক সম্পর্কে বিশ্বাস করেন, মূলত তাঁদের কথা ভেবেই তৈরি নতুন এই রিলেশনশিপ স্টেটাস। এঁদের সম্পর্কে কোনও পিছুটান নেই। অধিকারবোধ নেই। এক কথায় দেওয়া আর নেওয়া।

আমাদের সমাজে এর প্রচলন এখনও হয় নি ঠিকই। তবে সমাজ তার নিজ গতিতে এগোচ্ছে, তাতে খুব বেশিদিন হয়তো আর নেই, যেদিন বঙ্গ-সমাজেও এর স্পষ্ট অস্তিত্ব টের পাওয়া যাবে। কতটা মেনে নেব, মেনে নিতে পারব আমরা সেটা ভিন্ন বিষয়। তবে সমাজ এগোচ্ছে সেদিকেই।

ধরুন আজ একটা রিলেশন ব্রেক করলে, ১০ মিনিটও খারাপ লাগা কাজ করে না। কারণ প্রেমটা হয়েছিল ১০ মিনিটেই। ফলে পরের জনও ১০ মিনিটেই উঁকি দেয়। প্রেমিক / প্রেমিকাকে ছেড়ে দেওয়ার মধ্যে এদের কষ্ট নেই। থাকলেও ১০ মিনিট। তার মধ্যেই পরের জন মেসেজবক্স ঢুকে যায়।

এরকম চলতে থাকলে, সেদিন আর দূরে নয়, যেদিন দেখা যাবে একই সঙ্গে একাধিক মানুষের সম্পর্ক রয়েছে। এবং সেটা লুকিয়েচুরিয়ে নয়। খোলাখুলি। এটাই ওপেন রিলেশন।

তবে বাস্তবিকতার বিচারে সম্পর্কগুলোর গতি ঠিক কী, তা বলা মুশকিল। মুহূর্তবাদী সম্ভবত। ফলে মুহূর্ত ফুরোলে সম্পর্ক ফুরোয়। কষ্টহীন, অনুভূতিহীন সম্পর্ক। আবার প্রগতিশীলরা বলেন, কষ্ট কমাতেই নাকি এই ব্যবস্থা। ওপেন রিলেশনে বাধা নেই, প্রতিশ্রুতি নেই, ভবিষ্যৎ বলে কিছু নেই। তাই কষ্টও সেখানে নেই। যা আছে শুধুই বর্তমান।

বিষয়টি কেমন চলুন দেখে নেই:-

  • এক পুরুষের একাধিক মহিলাসঙ্গী, এক নারীর একাধিক পুরুষসঙ্গী। এবং সবার কাছেই সেটা ওপেন। লুকনোর কিছু নেই। তাই হারাবার ভয় নেই। একজন গেলে অন্যজন চলে আসে মুহূর্তের মধ্যে।
  • অনেক ব্যক্তির সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়ার কারণে একাকিত্ব গ্রাস করে না কখনওই। কেউ না কেউ সবসময় সঙ্গ দেবেই।
  • আপনার জীবনটা সত্যিই রঙিন হয়ে ওঠে। অনেকের সম্পর্ক মানেই ভ্যারাইটি।
  • যেহেতু কমিটমেন্ট নেই, তাই সেই সংক্রান্ত কোনও আশাও তৈরি হয় না। সঙ্গী যতদিন খুশি থাকতে পারে। না পোষালে ছেড়েও যেতে পারে। জোর করার কেউ নেই।
  • কখনওই বোর লাগে না। ভালোটাই নজরে আসে।
  • যেহেতু ব্যাপারটা ওপেন, বিবেক দংশন হওয়ার সম্ভাবনা কম।

ওপেন রিলেশনের কিছু মন্দ দিকও আছে চলুন দেখে নেই:-

  • অনেকের সঙ্গে সম্পর্ক থাকে ঠিকই। কিন্তু সেটা কতদিন। একটা সময়ের পর নিঃসঙ্গতা আসতে বাধ্য। কিন্তু ততদিনে নির্ভরযোগ্য সম্পর্কগুলো সব শেষ। ভরসা করার মানুষ তখন খুঁজে পাওয়া মুশকিল।
  • অনেকের সঙ্গে যৌনমিলনের কারণে যৌনসংক্রমণ হতে পারে। যার ফল মারাত্মক হতে পারে। যেতে পারে জীবনও।
  • গর্ভধারণ হলে বোঝার উপায় নেই পিতৃপরিচয়। ফলে দায় এড়াতে তখন ব্যস্ত সবাই।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট