আপনার দুশ্চিন্তা কমবে মাত্র আট মিনিটে

আপনার দুশ্চিন্তা কমবে মাত্র আট মিনিটে

খুব ক্লান্ত লাগছে? ভর করেছে রাজ্যের দুশ্চিন্তা। কী করবেন? বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গান শুনতে। কিন্তু কোন গান? ব্রিটেনের ব্যান্ড মার্কনি ইউনিয়নের করা একটা সুর আছে। নাম ‘ওয়েটলেস’। এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, শতকরা ৬৫ শতাংশ মানুষ জানিয়েছে, ‘ওয়েটলেস’ শোনার পর তাদের দুশ্চিন্তা কমে গিয়েছে। ঘুম নেমে এসেছে চোখে! ইউটিউবে গিয়ে এ নামে খুঁজলেই একটি মিউজিক ভিডিওসহ পেয়ে যাবেন সুরটি। ‘অর্গানিক অ্যান্ড হেলদি’ শীর্ষক একটি স্বাস্থ্য পত্রিকা জানিয়েছে, মাইন্ডল্যাব ইন্টারন্যাশনাল নামে লন্ডনের এক গবেষণা সংস্থা জানতে চায়, কোন ধরনের সংগীত মানুষের ক্লান্তিবোধ ও দুশ্চিন্তা কমিয়ে দিতে পারে।

ওই সংস্থার করা পরীক্ষায় বেশ কয়েকজন মানুষ অংশ নেয়। অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন গান ও সুর শুনতে দেওয়া হয়। এরপর পরীক্ষা করা হয়েছে মস্তিষ্কের অবস্থা, হৃদস্পন্দন, রক্তচাপ ও শ্বাসপ্রশ্বাসের অবস্থা। ওই সংস্থা দেখিয়েছে, ৬৫ শতাংশ মানুষ ‘ওয়েটলেস’ ট্র্যাকটি শুনে শান্ত করেছে মন। দূর হয়েছে তাদের ক্লান্তিভাব। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কনি ইউনিয়নের করা ওই সুরে ব্যবহার করা প্রতিটি বাদ্যযন্ত্রের ব্যবহার ছিল অসাধারণ। সুরটি শোনার সময় শ্রোতাদের রক্তচাপ স্বাভাবিক ছিল, যেসব হরমোন ক্লান্তি বাড়ায় তা কমিয়ে দেয়। তিন ব্রিটিশ রিচার্ড টালবট, জেমি ক্রসলি ও ডানকান মিডোস মিলে ২০০৩ সালে গড়ে তোলেন ব্যান্ড ‘মার্কনি ইউনিয়ন’। এখন পর্যন্ত ১০টি অ্যালবাম বের করেছে মার্কনি। এর মধ্যে ‘ওয়েটলেস’ বের হয় ২০১১ সালে। গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে যাঁরা নারী ছিলেন, তাঁদের অধিকাংশই সুরটি শোনার সময় ঘুমিয়ে পড়েন। গবেষকদলের প্রধান ডেভিড লুইস হজসন পরামর্শ দিয়েছেন দুশ্চিন্তা বা ক্লান্তিভাব দূর করতে ‘ওয়েটলেস’ সুরটি শোনা যায়। তবে গাড়ি চালানোর সময় তা শুনতে নিষেধ করেছেন তিনি!

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেক্স রিপোর্ট