কেমন ছিল সালমানের জেলের প্রথম রাত

কেমন ছিল সালমানের জেলের প্রথম রাত

কৃষ্ণসার হরিণ হত্যা মামলায় বৃহস্পতিবার ৫ বছরের কারাদণ্ড ঘোষণা হয় সালমান খানের। সাজা ঘোষণা হওয়ার পরই যোধপুর সেন্ট্রাল জেলের ২ নম্বরে ঘরে পাঠানো হয় সালমানকে। বৃহস্পতিবার রাত জেলের ২ নম্বর ঘরেই কাটে বলিউড ‘ভাইজান’-এর।

জেলের মধ্যে সালমানকে কোনও ভিআইপি ব্যবস্থা দেওয়া হবে না বলে আগেই জানিয়েছিলেন যোধপুরের ডিআইজি (কারা) বিক্রম সিং। যেমন কথা তেমনি কাজ। অর্থাৎ, গ্যালাক্সির বিলাসবহুল বিছানা ছেড়ে জেলের মধ্যে কাঠের খাটের উপর ঘুমনোর ব্যবস্থা হয় সালমানের।

কিন্তু, বৃহস্পতিবার জেলের মেঝেতেই শুয়েই রাত কাটান অভিনেতা। সেই সঙ্গে জেলে প্রথম রাত কাটানোর জন্য সালমানকে ৪টি কম্বল দেওয়া হয়। কিন্তু, কোনও কিছু তিনি ব্যবহার করেননি। পাশাপাশি রাতে জেলের কোনও খাবারই তিনি মুখে তোলেননি।

শুক্রবার সালমানের জামিনের আবেদন মামলার শুনানি হবে। যোধপুর সেশন কোর্টে সকাল ১০.৩০ নাগাদ নিয়ে যাওয়া হবে ভাইজানকে। সালমানের জন্য ইতিমধ্যেই যোধপুর সেন্ট্রাল জেল নিরপত্তার ঘেরাটোপে মুড়ে ফেলা হয়েছে। যোধপুর সেন্ট্রাল জেলের ২ নম্বর ব্যারাকে আপাতত সালমানের সঙ্গী ধর্ষণে অভিযুক্ত স্বঘোষিত ধর্মগুরু আসরাম বাপু।

১৯৯৮ সালে ‘হাম সাথ সাথ হ্যায়’-এর শুটিংয়ের সময় যোধপুরের কঙ্কনি গ্রামে ২টি বিরল প্রজাতির হরিণকে লক্ষ্য করে গুলি চালান সালমান। এই অভিযোগেই শেষ পর্যন্ত যোধপুর সেন্ট্রাল জেল সালমানকে হাজতবাসের নির্দেশ দেয়।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট