‘ইউরোপীয় ইউনিয়নকে জানিয়েছি, আমরা অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চাই’

‘ইউরোপীয় ইউনিয়নকে জানিয়েছি, আমরা অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চাই’

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, ‘বাংলাদেশে আগামী সংসদ নির্বাচনের বিস্তারিত ইউরোপীয় ইউনিয়নকে (ইইউ) জানিয়েছি।

আমরা তাদের বলেছি, আগামী নির্বাচন বর্তমান সরকারের অধীনে সব দলের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হবে এবং সংবিধান অনুযায়ী হবে। ক্ষমতাসীন সরকার সেই নির্বাচনের সময় নির্বাচনকালীন সরকারের দায়িত্বে থাকবে।’

বৃহস্পতিবার (৪ অক্টোবর) বাণিজ্যমন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে ‘ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)-বাংলাদেশ বিজনেস ক্লাইমেট ডায়ালগ’ শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে ইউরোপীয় ইনিয়নের রাষ্ট্রদূত রেনজি তিরিংক উপস্থিত ছিলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ইইউভুক্ত দেশগুলো বাংলাদেশের বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগ করতে চায়। এক্ষেত্রে তারা বিনিয়োগের পরিবেশ ও অবকাঠামোর উন্নয়নের তাগিদ দিয়েছে।’

বাণিজ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা ইইউকে জানিয়েছি, বাংলাদেশে এই মুহূর্তে বিনিয়োগের জন্য চমৎকার পরিবেশ বিদ্যমান। ইইউভুক্ত দেশগুলো যদি বিনিয়োগ করতে চায় তাহলে সরকার যে ১০০টি ইকোনোমিক জোন করতে চেয়েছে তার মধ্যে একটি আমরা তাদের জন্য ছেড়ে দিতে পারি। ইইউ যদি বিনিয়োগ করে তাহলে তাদেরকে এই বিশেষ সুবিধা দেওয়া হবে।’

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ২০২৫ সালের মধ্যে উন্নয়নশীল দেশে পরিণত হবো। তবে ২০২৭ সাল পর্যন্ত আমরা ইইউ’র কাছ থেকে স্বল্প উন্নত দেশ হিসেবে এখন যে সুবিধা পাচ্ছি সেটি বিদ্যমান থাকবে।’

তোফায়েল আফমেদ বলেন, ‘ইইউভুক্ত দেশগুলো বাংলাদেশে ২১.৩৩ বিলিয়ন ডলারের পণ্য রফতানি করে। পাশাপাশি বাংলাদেশ ইইউভুক্ত দেশগুলোতে রফতানি করে মাত্র ৩.৫ বিলিয়ন ডলারের পণ্য।’

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট