ইউরোপ ‘দুর্বোধ্য ও আগ্রাসী’ আচরণ করছে: রাশিয়া

ইউরোপ ‘দুর্বোধ্য ও আগ্রাসী’ আচরণ করছে: রাশিয়া

রাশিয়া বলেছে, সাবেক দ্বৈত গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপাল ও তার মেয়েকে হত্যাপ্রচেষ্টার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইউরোপীয় দেশগুলো মস্কোর সঙ্গে যে আচরণ করছে তা রাশিয়ার জন্য ‘মারাত্মক অস্বস্তিকর’।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, “ইউরোপীয় দেশগুলো দুর্বোধ্য ও আগ্রাসী আচরণ করছে যা মস্কোর জন্য অস্বস্তিকর। কিন্তু এটাই হচ্ছে সে বাস্তবতার যার সঙ্গে আমাদের বসবাস করতে হয়।”

তিনি বলেন, ইউরোপীয় দেশগুলোর সঙ্গে এ বিষয়ে কাজ করার সময় রাশিয়া কখনো দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগবে না।

ব্রিটেনের স্যালিসবারি শহরের একটি বেঞ্চের ওপর গত ৪ মার্চ স্ক্রিপাল ও তার ৩৩ বছর বয়সি মেয়েকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় পাওয়া যায়। বর্তমানে হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা চলছে।  ব্রিটিশ সরকার দাবি করছে, রাশিয়ায় তৈরি নার্ভ গ্যাস- নোভিচক দিয়ে স্ক্রিপালের ওপর হামলা করা হয়েছে। লন্ডন সরাসরি এ ঘটনার জন্য রাশিয়াকে দায়ী করেছে।

রাশিয়া এ অভিযোগকে ‘হাস্যকর’ বলে উড়িয়ে দিয়েছে। মস্কো বলছে, ব্রিটেনসহ যেসব দেশ এই গ্যাস নিয়ে গবেষণা করছে সেগুলোর কোনো একটি দেশ থেকে এনে ওই হামলা চালানো হয়ে থাকতে পারে।

রাশিয়া ও ব্রিটেনের মধ্যে পরস্পরবিরোধী এই অভিযোগে ইউরোপীয় ইউনিয়ন বা ইইউ ব্রিটেনের পক্ষ নিয়েছে। বৃহস্পতিবার মস্কোয় নিযুক্ত ইইউ’র রাষ্ট্রদূতকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এ ছাড়া, ইইউভুক্ত বেশ কয়েকটি দেশ রাশিয়ার রাষ্ট্রদূতদের বহিষ্কারের বিষয়টি বিবেচনা করছে।

এক সময় রুশ গোয়েন্দা বিভাগে কাজ করতেন স্ক্রিপাল। কিন্তু ব্রিটেনের হয়ে কাজ করার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হন তিনি। পরে গুপ্তচর বিনিময় আইনের আওতায় তিনি মুক্তি পান এবং ব্রিটেনে বসবাস শুরু করেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট