ইনজুরিতে মাশরাফি, ভেঙেছে ডান হাতের কনিষ্ঠা

ইনজুরিতে মাশরাফি, ভেঙেছে ডান হাতের কনিষ্ঠা

এশিয়া কাপের সুপার ফোরের শেষ ম্যাচে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে শোয়েব মালিক দারুণ ক্যাচ নেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। তখনই ব্যাপারটি বুঝতে পেরেছিলেন। আঘাত পেয়েছেন ডান হাতের কনিষ্ঠ আঙুলে। কিন্তু ব্যাপারটিকে ততটা গুরুত্ব দেননি তিনি। এক পর্যায়ে অবশ্য ব্যান্ডেজ নিতে বাধ্য হয়েছিলেন। তারপরও খেলা চালিয়ে গেছেন ওয়ানডে অধিনায়ক। এখন সেই চোটই নড়াইল এক্সপ্রেসের জন্য কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে। এক্সরে রিপোর্টে জানা গেছে কনিষ্ঠ আঙুলের হাড় ভেঙে গেছে। ঠিক হতে সময় লাগবে দিন পনেরোর মত।

মাশরাফি শুধু আঙুলের চোটই পড়েননি। তাকে এরইমধ্যে আরও দুটি দুঃসংবাদ শুনতে হয়েছে, ছিঁড়ে গেছে ডান পায়ের উরুর মাংসপেশি। যেটা ঠিক হতে পারে দিন দশেকের মধ্যে। একই সাথে শঙ্কা দেখা দিয়েছে ওই উরুতেই টিউমারের। তবে যেটাকে টিউমার বলে ধারণা করা হচ্ছে, সেই জায়গাতে বল লাগার কারণেও ফুলে থাকতে পারে। ব্যাপারটি আসলে বোঝা যাবে কয়েকদিন পরই।

চলতি মাসের শেষ ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ে সিরিজ। এজন্য বাংলাদেশ দলের কন্ডিশনিং ক্যাম্প শুরু হবে চলতি মাসের ১৫ তারিখে। তবে এর আগে একটুও স্বস্তিতে নেই টাইগার শিবিবে। একেক পর এক যুক্ত হচ্ছে চোট। যেই চোটে সবথেকে বেশি ভুগতে হচ্ছে দলের সিনিয়র ক্রিকেটারদের। যার সবশেষ সংযোজন মাশরাফি। তার আগে চোটে পড়েছেন তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহীম।

সাকিব আল হাসানের আঙুলের চোট সারাতে করা হয়েছে অস্ত্রোপচার। সেটা শুকিয়ে গেলে আরেক দফাতে ডাক্তারদের ছুরিকাঁচির নিচে যেতে হবে তাকে। সবেমিলে তিন মাসেরও বেশি সময় তাকে পাবে না টিম বাংলাদেশ। এদিকে তামিম ইকবালের হাতে অস্ত্রোপচার করা না লাগলেও মাঠে ফিরতে সময় লাগবে সাত থেকে আট সপ্তাহের মত। এদিকে পাজড়ের চোটে ভুগছেন মুশফিকুর রহীমও। সে কারণে হয়তো তাকে জিম্বাবুয়ে সিরিজে পাবে না বাংলাদেশ।

গত কয়েক মাস ধরেই টাইগার শিবিরে চোটে পড়া ক্রিকেটারদের তালিকা লম্বা হচ্ছে। যার সবশেষ সংযোজন মাশরাফি। ব্যাপারটি নিয়ে ভাবছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি)। কেননা টাইগারদের সামনেই যে ব্যস্ত সূচি। যার শুরুটা হবে চলতি মাসের শেষ দিকে জিম্বাবুয়ে সিরিজ দিয়ে। পরের মাসে ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে খেলা। আগামী বছরের শুরুতে বিপিএল। তারপরই নিউজিল্যান্ড সিরিজ। তার মানে ২০১৯ বিশ্বকাপের আগে দম ফেলার সুযোগ নেই স্টিভ রোডসের শিষ্যরা। তবে আশার খবর, দ্রুতই ঐ চার ক্রিকেটার সুস্থ হয়ে উঠবেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট