ইরানের সঙ্গে ইউরোপের সম্পর্ক নষ্ট করার জন্য নানাভাবে চেষ্টা চালাচ্ছে ‘মোসাদ’

ইরানের সঙ্গে ইউরোপের সম্পর্ক নষ্ট করার জন্য নানাভাবে চেষ্টা চালাচ্ছে ‘মোসাদ’

ইরানের বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নের যখন এক সপ্তাহেরও কম সময় বাকি এবং ইউরোপের কিছু পদক্ষেপের কারণে এ নিষেধাজ্ঞা ব্যর্থ হওয়ার ব্যাপারে ব্যাপক সম্ভাবনার কথা শোনা যাচ্ছে ও ইরানের তেল বিক্রিও অব্যাহত রয়েছে ঠিক তখন ইরান বিরোধী নতুন করে ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে।

ইরানের একজন সরকার বিরোধী নেতাকে তেহরান ডেনমার্কের মাটিতে হত্যার প্রচেষ্টা চালিয়েছে বলে কোপেনহেগেন অভিযোগ করার পর নতুন করে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। একদিকে ডেনমার্কের এ অভিযোগের প্রতি আমেরিকার সমর্থন অন্যদিকে হত্যা প্রচেষ্টার নাটক সাজানোর পেছনে ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের হাত থাকার বিষয়টি চিহ্নিত হয়ে পড়া থেকে বোঝা যায়, এসবের মাধ্যমে পরমাণু সমঝোতা রক্ষার জন্য ইউরোপের সঙ্গে ইরানের সহযোগিতাকে ক্ষতিগ্রস্ত করার চেষ্টা চলছে। ইসরাইলি দৈনিক জেরুজালেম পোস্ট স্বীকার করেছে, ডেনমার্কের মাটিতে ইরানের একজন সরকার বিরোধী নেতাকে হত্যার প্রচেষ্টার জন্য তেহরানের বিরুদ্ধে যে অভিযোগ তোলা হয়েছে তার পেছনে ইসরাইলের হাত ছিল।

গত ৮ মে পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকার বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণা এবং গত জুনে ইরানের প্রেসিডেন্টের ইউরোপ সফরের সময় ফ্রান্সে ইরান বিরোধী গোষ্ঠীর সমাবেশে হামলা প্রচেষ্টায় তেহরানের হাত থাকার অভিযোগ থেকে বোঝা যায়, এসব ঘটনার পেছনে ইসরাইলের ভূমিকা রয়েছে। এ ছাড়া, ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু গত ৩০ এপ্রিল ইরানের পরমাণু কর্মসূচির ব্যাপারে কিছু ভুয়া সিডি ও কাগজ পত্র তুলে ধরার পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত ৮মে পরমাণু সমঝোতা থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন। এভাবে প্রতিটি ঘটনার সঙ্গে ইসরাইলের যোগসূত্র খুঁজে পাওয়া যায়।

পর্যবেক্ষকরা বলছেন, প্যারিসের উপকণ্ঠে ইরান বিরোধী সন্ত্রাসী মোনাফেকিন গোষ্ঠীর সম্মেলনে বোমা পেতে রাখার অভিযোগ এবং গত সপ্তাহে ডেনমার্কে ইরান বিরোধী একজন নেতাকে হত্যাপ্রচেষ্টার সঙ্গে তেহরানের জড়িত থাকার অভিযোগের পেছনেও ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের হাত রয়েছে। এসব থেকে বোঝা যায় পরমাণু সমঝোতা থেকে আমেরিকার বেরিয়ে যাওয়ার পর ইউরোপের সঙ্গে ইরানের সহযোগিতাকে ক্ষতিগ্রস্ত করাই তাদের প্রধান লক্ষ্য। ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফ গতকাল টুইট বার্তায় বলেছেন, এসব ঘটনাবলী থেকে পরমাণু সমঝোতা ধ্বংস করে দেয়ার জন্য ইসরাইল ব্যাপক চেষ্টা চালাচ্ছে।

ইরানের বিরুদ্ধে ডেনমার্ক সরকারের অভিযোগের পর মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ফক্স নিউজকে দেয়া সাক্ষাতকারে ইরান ও ইউরোপের মধ্যকার সম্পর্ককে ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য ইসরাইল-মার্কিন চেষ্টার কথা উল্লেখ করে বলেছেন, আমেরিকা প্রতিনিয়ত ইউরোপীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে যাতে ডেনমার্কের অভিযোগের বিষয়টি আমলে নিয়ে ইউরোপ ইরানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করে।

পম্পেওএর বক্তব্য থেকে বোঝা যায়, আমেরিকা ও ইসরাইল ইরানের সঙ্গে ইউরোপের সম্পর্ক ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে যাতে ইউরোপও পরমাণু সমঝোতা থেকে সরে আসার পাশাপাশি ইরান বিরোধী মার্কিন নিষেধাজ্ঞা মেনে চলে। কিন্তু ইউরোপ এখন পর্যন্ত পরমাণু সমঝোতা টিকিয়ে রাখার পক্ষে কথা বলায় আমেরিকা ও ইসরাইলের ঘুম হারাম হয়ে গেছে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট