উইন্ডিজ বিশ্বকাপ দলে রাসেল, নেই পোলার্ড-নারিন

উইন্ডিজ বিশ্বকাপ দলে রাসেল, নেই পোলার্ড-নারিন

উইন্ডিজের হয়ে ওয়ানডেতে একেবারেই অনিয়মিত ছিলেন আন্দ্রে রাসেল। নির্বাচকরা বরাবরই তাকে দলে চাইলেও ফ্রেঞ্চাইজি ক্রিকেটের অগ্রাধিকারে থাকতেন না জাতীয় দলের খেলায়। আইপিএলে দুর্ধর্ষ ফর্মে থাকা সেই রাসেল ফিরেছেন বিশ্বকাপ দলে। তবে জায়গা হয়নি অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মারলন স্যামুয়েলসের। জায়গা হয়নি অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার সুনিল নারাইনেরও।

দল ঘোষণার শেষ দিন ঘোষিত ক্যারিবিয়ানদের বিশ্বকাপ দল আছে রোমাঞ্চকর সব নাম।  স্যমুয়েলস না থাকলেও ১৫ সদস্যের উইন্ডিজ দলে আছেন তাদের সেরা সব তারকাই। টেস্ট দলের মূল ভরসা হয়ে খেলা পেসার শ্যানন গ্যাব্রিয়েল ফিরেছেন ওয়ানডেতেও। অনুমিতভাবেই আছেন শেষ আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট খেলতে যাওয়া ক্রিস গেইল।

২০১৮ সালের জুলাই মাসে সর্বশেষ একটা ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছিলেন রাসেল। তার আগে খেলেছেন ২০১৫ সালের বিশ্বকাপে। কিন্তু সময়ে খেলেছেন টি-টোয়েন্টি। পুরো দুনিয়া ঘুরে মাত করেছেন ফ্রেঞ্চাইজি টি-টোয়েন্টি লিগ। চলমান আইপিএলেও এবার চলছে রাসেলের তান্ডব।

উইন্ডিজ দলে উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে আছেন দুজন। তাদের একজন শেই হোপ অবশ্য ব্যাটিংয়ে বড় ভরসার নাম। অন্যজন নিকোলাস পুরান টি-টোয়েন্টিতে দুরন্ত ফর্ম দেখিয়ে এসেছেন ওয়ানডেতে। ইতিমধ্যে দারুণ ঝড়ো ব্যাট করার জন্য সুনাম কুড়িয়েছেন এই বাঁহাতি।

অধিনায়ক জেসন হোল্ডারের সঙ্গে পেস অলরাউন্ডার হিসেবে দলে আছেন কার্লোস ব্র্যাথওয়েট। তবে জায়গা হয়নি অভিজ্ঞ কাইরন পোলার্ডের।

পেস আক্রমণে গ্যাব্রিয়েলের সঙ্গে তার সাদা পোশাকের সঙ্গী কেমার রোচও আছেন, আছেন গতিময় পেসান ওশান টমাস।

৩১ মে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে দুই বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন উইন্ডিজের বিশ্বকাপ মিশন। তার আগে মে মাসের শুরু থেকে বাংলাদেশ ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে আয়ারল্যান্ডে একটি ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলবে তারা। সেই ত্রিদেশীয় সিরিজের দলে অবশ্য বিশ্বকাপ তারকাদের অনেকেই নেই।

বিশ্বকাপের উইন্ডিজ দল: 

জেসন হোল্ডার (অধিনায়ক), ফ্যাবিয়ান অ্যালেন, ড্যারন ব্রাভো, কার্লোস ব্র্যাথওয়েট, শেলডন কটরেল, শ্যানন গ্যাব্রিয়েল, ক্রিস গেইল, শিমরন হেটমায়ার, শেই হোপ (উইকেটরক্ষক), এভিন লুইস, অ্যাশলি নার্স, নিকোলাস পুরান (উইকেটরক্ষক), কেমার রোচ, আন্দ্রে রাসেল, ওশান টমাস। 

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট