উপাচার্যের বাসভবনে হামলাকারীরা সন্ত্রাসী, জড়িতদের ছাড় দেয়া হবে না: কাদের

উপাচার্যের বাসভবনে হামলাকারীরা সন্ত্রাসী, জড়িতদের ছাড় দেয়া হবে না: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বাসভবনে হামলাকারীরা শিক্ষার্থী নয়, এরা সন্ত্রাসী। ফলে এই নারকীয় হামলার সঙ্গে জড়িতদের কোনো ছাড় দেয়া হবে না।

হামলার ঘটনাকে মধ্যযুগীয় আখ্যা দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, এটি একাত্তরের বর্বরতাকেও হার মানায়।

মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি)উপাচার্যের বাসভবন পরিদর্শন শেষে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় ওবায়দুল কাদেরর সঙ্গে ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি, সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য ড. মো. আখতারুজ্জামানসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। এ সময় তারা বাড়িটি ঘুরে ঘুরে দেখেন।

এর আগে সোমবার সন্ধ্যায় উপাচার্যের বাসভবনে সংঘটিত ভাংচুর, অগ্নি-সংযোগ ও বর্বরোচিত ঘটনা খতিয়ে দেখতে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনস্থ কনফারেন্স রুমে জরুরি সিন্ডিকেট সভায় এ তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়।

তদন্ত কমিটির প্রধান করা হয়েছে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ, সিন্ডিকেট সদস্য ও আর্থ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নীলিমা আকতার, এস এম বাহালুল মজনুন, অধ্যাপক মো. মোয়াজ্জম হোসেন মোল্লা। কমিটিকে বর্ণিত ঘটনার ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ ও দোষীদের চিহ্নিত করে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন পেশ করতে বলা হয়েছে।

চাকরির ক্ষেত্রে কোটা সংস্কারের দাবিতে রোববার রাতে ঢাকার শাহবাগে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ চলাকালে কে বা কারা রাত দেড়টা থেকে আড়াইটার মধ্যে ভিসির বাড়িতে প্রবেশ করে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে।

পরে রাত সাড়ে তিনটার দিকে উপাচার্য ড. আখতারুজ্জামান গণমাধ্যমকে জানান, প্রধানমন্ত্রী তাকে ফোন করেছিলেন এবং তিনি প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন এ কাজ যারা করেছে তারা শিক্ষার্থী হতে পারে না।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট