উসমান-পেইনের বীরত্বে ম্যাচ বাঁচালো অস্ট্রেলিয়া

উসমান-পেইনের বীরত্বে ম্যাচ বাঁচালো অস্ট্রেলিয়া

জয়ের স্বপ্ন দেখা ছিল বাড়াবাড়ি। হারটাই চোখ রাঙাচ্ছিল বেশি। এই দুয়ের মাঝে থাকা ড্র ছিল অস্ট্রেলিয়ার সম্ভাব্য গন্তব্য। কিন্তু চতুর্থ ইনিংসে শেষ দিনে যেখানে হাতে আছে ৭ উইকেট, সেই স্বপ্নটাও ফ্যাকাশে হয়ে আসছিল অস্ট্রেলিয়ার জন্য। যদিও ক্রিকেটের আসল উত্তেজনা মঞ্চায়িত করে দুবাই টেস্টে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ শেষ করেছে নাটকীয় ড্রতে।

প্রথম ইনিংসে মোহাম্মদ হাফিজ এবং হারিস সোহেলের সেঞ্চুরি, অফ স্পিনার বিলাল আসিফের ৬ উইকেট (৬/৩৬) এ ২৮০ রানের লিডটাই দেখিয়েছে পাকিস্তানকে জয়ের স্বপ্ন। দুবাই টেস্টের ৪র্থ দিন শেষে জয় থেকে ৭ উইকেট দূরে ছিল পাকিস্তান ( অস্ট্রেলিয়া ১৩৬/৩)।

চতুর্থ ইনিংসে অস্ট্রেলিয়াকে ৪৬২ রানের চ্যালেঞ্জে ফেলে জয়ের স্বপ্ন দেখেছে পাকিস্তান। তবে পাকিস্তানের সামনে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছেন অজি ওপেনার ওসমান খাজা। পঞ্চম দিনে ম্যাচের চিত্রনাট্যটা তৈরি করেছেন এই ওপেনার। সর্বশক্তি দিয়েও টলাতে পারেনি তাকে পাকিস্তান।

তার ১৪১ রানের ইনিংস এবং চতুর্থ উইকেট জুটির ১৩২ রানে দুবাই টেস্ট বাঁচিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।  জিততে হলে করতে হবে রেকর্ড।  কারন, চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ ৪০৪ চেজ করে জয়ের রেকর্ড আছে অস্ট্রেলিয়ার। তা ১৯৪৮ সালে,লিডসে-ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। পাকিস্তানের বিপক্ষে চতুর্থ ইনিংসে সর্বোচ্চ ৩৬৯ রানের চ্যালেঞ্জে জয়ের রেকর্ড আছে অস্ট্রেলিয়ার। তা ১৯৯৯ এ, হোবার্ট টেস্টে। দুবাইয়ে সেখানে ৪৬২ চেজ করতে নেমে চতুর্থ ইনিংসে অস্ট্রেলিয়া থেমেছে ৩৬২/৮ এ।

৫ম দিন লেগ স্পিনার ইয়াসির শাহ’র ভয়ংকর রূপ ছড়িয়েও ( ৪/১১৪) পাকিস্তানের কাজে আসতে পারেননি। চতুর্থ দিন শেষে ৫০ রানে ব্যাটিংয়ে থাকা ওসমান খাজা ৫২৪ মিনিটের ইনিংসে ১৪১ রানে পাকিস্তানকে জয় থেকে বঞ্চিত করেছেন।  দু’টি  পার্টনারশিপে দিয়েছেন ওসমান খাজা নেতৃত্ব। চতুর্থ উইকেটে ১৩২, ৬ষ্ঠ উইকেটে ৭৯ রানে দিয়েছেন এই ওপেনার নেতৃত্ব।   ৪র্থ দিন ৩৪ রানে অবিচ্ছিন্ন থাকা হেড ৭২ পর্যন্ত ইনিংস নিয়েছেন টেনে। পেইনের হার না মানা ৬১ এবং ৯ম জুটিতে লায়নকে নিয়ে ৪৮ মিনিটের প্রতিরোধে ড্র’য়ে নিষ্পত্তি হয়েছে দুবাই টেস্ট।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট