দিনে কতগুলো ডিম খেতে পারেন? কী বলেন বিশেষজ্ঞরা?

দিনে কতগুলো ডিম খেতে পারেন? কী বলেন বিশেষজ্ঞরা?

ডিম এমনই এক খাবার যার স্বাস্থ্যগুণ যেমন সর্বজনবিদিত, তেমনই ডিম খেতে ভালবাসেন না এমন মানুষও প্রায় খুঁজে পাওয়া দুষ্কর।যারা ডিম খেতে ভালবাসেন তারা একসঙ্গে একাধিক, এমনকী দিনে ৩-৪টে ডিমও খেয়ে ফেলেন। স্বাস্থ্যকর বলে কি সত্যিই দিনে এতগুলো ডিম খাওয়া যেতে পারে? দিনে কতগুলো ডিম খেতে পারেন? কী বলেন বিশেষজ্ঞরা?

এই মুহূর্তে পৃথিবীর অন্যতম জনপ্রিয় ডায়েট বয়েলড এগ ডায়েট। এই ডায়েট অনেক প্রকারের হয়। যার মধ্যে একটিতে সারা দিন ধরে শুধুই সিদ্ধ ডিম খেয়ে থাকার নিয়ম। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত এক দিনে ৬টা ডিম। যে কোনও অ্যাথলেটিক প্রতিযোগিতার আগে এই ডায়েট প্রয়োজনীয় হলেও ডিম ফ্যাট ও প্রোটিনে পরিপূর্ণ হওয়ার কারণে বিশেষজ্ঞরা সাবধান করছেন। নিউট্রিশনিস্টরা বলেন, যারা প্রতি দিন এক্সারসাইজ বা কায়িক পরিশ্রম করেন না তাদের কখনই দিনে দুটোর বেশি ডিম খাওয়া উচিত নয়। খুব বেশি গরমে দিনে একটার বেশি কখনই খাওয়া উচিত নয়।

ডিম ও ওজন

ডায়েটিশিয়ানরা বলেন ডিম ওজন কমাতে সাহায্য করে। আবার মনে করা হয় ডিমের কুসুম রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা বাড়িয়ে দেয় যা ওজন বাড়াতে সাহায্য করে। যে কারণে ফিটনেস সচেতন মানুষরা শুধু ডিমের সাদা অংশ খান। সারা বিশ্বে বিশেষজ্ঞরা ওজন কমানোর জন্য বয়েলড এগ ডায়েট মেনে চলার পরামর্শ দেন যাতে ওজন কমার পাশাপাশি সঠিক পুষ্টিও মেলে।

ব্রেকফাস্টে ডিম খেলে তা অনেকক্ষণ পেট ভরা রাখতে সাহায্য করে। ডিম প্রোটিনে পরিপূর্ণ। তাই যদি ক্যালোরি ঝরাতে চান তা হলে লিন মাসলের সাহায্যে ফ্যাট লস প্রতিস্থাপন করার জন্য ডিমের থেকে ভাল কিছু হতে পারে না। ডিম থার্মোজেনিক এবং মেটাবলিজমের মাত্রা বাড়িয়ে ক্যালোরি ঝরাতে সাহায্য করে। ইউএস ন্যাশনাল লাইব্রেরি অব মেডিসিন, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথ-এ প্রকাশিত গবেষণার ফল বলছে, ব্রেকফাস্টে ডিম খেলে লাঞ্চের আগে পর্যন্ত পেট ভরা থাকে। ঠিক একই ভাবে আগামী ৩৬ ঘণ্টা পর্যন্ত ক্যালোরি গ্রহণ করার মাত্রাও কমে। ২৫ থেকে ৬০ বছর বয়সী ৩০ জন মহিলাকে নিয়ে এই গবেষণা করা হয়েছিল।

পেশী ও হাড়ের জোর বাড়াতেও সাহায্য করে ডিম। সেই সঙ্গেই কী ভাবে ডিম খাচ্ছেন সেটাও গুরুত্বপূর্ণ। তেল না থাকার জন্য সিদ্ধ ডিম সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর। অনেক ডায়েটিশিয়ান সপ্তাহে অন্তত দু’দিন দুটি সিদ্ধ ডিমের সঙ্গে কিছু সব্জি, স্যালাড ও ফল খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। এর মধ্যে একটি গোটা ডিম ও একটি ডিমের শুধু সাদা অংশ খাওয়া সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট