এটাই মেসির শেষ বিশ্বকাপ!

এটাই মেসির শেষ বিশ্বকাপ!

রাশিয়ায় পৌঁছে প্রথমবারের মতো অনুশীলন করেছে আর্জেন্টিনা। এদিন আলবিসেলেস্তেদের অনুশীলন ক্যাম্পে ছিল সমর্থকদের উপচেপড়া ভিড়। মেসিরাও সমর্থকদের সঙ্গে ছবি তুলে ও অটোগ্রাফ দিয়ে সময় কাটিয়েছেন। এদিকে, বিশ্বকাপের আগেই সুখবর পেয়েছে মিশর। প্রথম ম্যাচ থেকে মাঠে নামবেন বলে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন দলের সেরা তারকা মোহাম্মদ সালাহ।

রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে শেষ মুহূর্তে খেলা হয়নি ইসরাইলের সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচ। হাইতির বিপক্ষে ৪-০ গোলের জয়ে ভর করেই রাশিয়ায় পা রেখেছিল আর্জেন্টিনা। রাশিয়ায় আসার পর বিশ্রাম শেষে অবশেষে প্রথমবারের মতো অনুশীলন আলবিসেলেস্তেদের।

ব্রনিতসি বেসে প্রিয় দলের অনুশীলন দেখতে ভিড় করেন সমর্থকরা। শিশু থেকে বৃদ্ধ। বাদ যাননি কেউ। সবার আকর্ষণের কেন্দ্র জুড়ে ছিলেন লিওনেল মেসি। পুরোটা সময় আগুয়েরো, হিগুইনদের সঙ্গে কঠোর অনুশীলন করেছেন আলবিসেলেস্তেদের স্বপ্নদ্রষ্টা। রাশিয়া বিশ্বকাপ এবার হতে পারে মেসির ক্যারিয়ারের শেষ বিশ্বকাপ।

৩২ বছরের অপেক্ষার প্রহর কি অবসান করতে পারবেন মেসি? তা অবশ্য জানা নেই। তবে, সমর্থকরা সে হিসেব নিকেশ নিয়ে না থেকে আপাতত আছেন আর্জেন্টিনার খেলা দেখার আশায়। অনুশীলন শেষে সমর্থকদের সঙ্গে ছবি তোলা ও অটোগ্রাফ দিতে ভোলেননি মেসি।

মেসির মতোই আফ্রিকা মহাদেশের সব আলো একাই কেড়ে নিয়েছেন মোহাম্মদ সালাহ। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে ইনজুরিতে পড়ার পর থেকেই সবাই অপেক্ষায় আছেন কখন শুনবেন সালাহ ফিট হয়ে উঠেছেন। তাদের স্বস্তির খবর শুনিয়েছেন সালাহ নিজেই। রাশিয়ার গ্রজনিতে বসেছে মিশরের অনুশীলন ক্যাম্প। সেখানে পৌঁছালে পুরো দলকে দেয়া হয় উষ্ণ সংবর্ধনা।

পরে সবাইকে অবাক করে দিয়ে অল্প সময়ের জন্য অনুশীলনও করেছেন সালাহ। এ সময়ই শুনিয়েছেন খুশির খবর।

মিশরের ফুটবলার মোহাম্মদ সালাহ বলেন, এখনি বলতে পারছি না বিশ্বকাপে আমরা কতটা পথ যেতে পারবো। তবে, আশা হারাচ্ছি না। মিশরের হয়ে প্রতিটি ম্যাচেই খেলতে চাই আমি। এ মুহূর্তে বেশ ভালো আছি। আশা করছি, আসরের শুরু থেকেই মাঠে নামতে পারবো।’

এদিকে, নিঝনি নভোগোরদে অনুশীলন ক্যাম্প করেছে উরুগুয়ে। প্রথম দিন দলের অনুশীলনে সমর্থকদের চোখ ছিল লুইস সুয়ারেজের দিকে। বিশ্বকাপ এলেই ঘুরে ফিরে আলোচনায় আসে সুয়ারেজের ব্রাজিল বিশ্বকাপে ইতালিয়ান ডিফেন্ডার কিয়েল্লিনিকে কামড় দেয়ার ঘটনাটি।

এত কিছুরও পরও উরুগুইয়ান তারকাকে অনুশীলনে ভালোবেসেই সমর্থন দিয়েছেন সবাই। সুয়ারেজও আশ্বস্ত করেছেন এবারের বিশ্বকাপে সবাই ভিন্ন এক রূপ দেখতে পাবে তার। অনুশীলন শেষে সবার সঙ্গে ছবি তুলে সময় কাটিয়েছেন এ বার্সা তারকা।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট