‘এ মাস থেকেই কাজ শুরু করবে গুজব শনাক্তকরণ সেল’

‘এ মাস থেকেই কাজ শুরু করবে গুজব শনাক্তকরণ সেল’

ফেসবুক, ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত গুজব, তথ্য সনাক্ত করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। মঙ্গলবার সচিবালয়ে তথ্য মন্ত্রণালয়ে গুজব শনাক্তকরণ  সেল এর কার্যক্রম নির্ধারণ আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। এ সময় তিনি আরো জানান, এই বিষয়টি পর্যবেক্ষণে ৯ সদস্য বিশিষ্ট গুজব শনাক্তকরণ সেল গঠন করা হবে।

তারানা হালিম বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রতি নষ্ট করে, রাষ্ট্রকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলে দেয়, যেকোন আন্দোলনকে অযৌক্তিক, অসত্য তথ্য দিয়ে বা গুজব দিয়ে উসকে দেয়া এই ধরনের যে গুজব আছে সেগুলো আমরা শনাক্ত করবো। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় এর অধীনস্থ বিভাগুলো আমাদের সহায়তা করবেন।

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের গোয়েন্দা সংস্থারা আমাদের জানাবেন যে এই এই গুজব অনলাইনে ঘুরে বেড়াচ্ছে। আমরা শুধু গুজবটা শনাক্ত করতে চাই, জনগণকে  দ্রুত অবহিত করতে চাই।’

তারানা হালিম আরও বলেন, পরবর্তীতে গুজবগুলোর তালিকা তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে কনটেন ব্লক বা ফিল্টার করার জন্য বিটিআরসির কাছে পাঠিয়ে দেব। গুরুত্ব বিবেচনায় আমরা এটি দৈনিক বা সাপ্তাহিকভাবে করতে পারি। এ জন্য তথ্য মন্ত্রণালয়সহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, গোয়েন্দা সংস্থাসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সংস্থার প্রতিনিধিদের এক সঙ্গে কাজ করতে হবে।’

এসময় তিনি আরো বলেন, ‘এ কাজগুলো করার জন্য ইতোমধ্যে তথ্য অধিদফতর সিনিয়র তথ্য অফিসারকে প্রধান করে একটি ৯ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে। এ কমিটির অধীনে কাজ করবে আর কিছু কর্মকর্তা। এ সেলটিকে কার্যকর করার জন্য প্রথমে নির্ধারণ করা হবে এ মুহূর্তে অনলাইনে কোন গুজবগুলো ঘুরে বেড়াচ্ছে সেটা নির্ধারণ করা। এগুলো আসলে গুজব কিনা সেটা নির্ধারণে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর লোকজন সংশ্লিষ্ট অঞ্চলে গিয়ে নিশ্চিত হবে। গুজব না হলে সেখানে আমাদের কিছু করার থাকবে না। গুজব হলেই আমরা জানাবো যে এটি গুজব।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট