এ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়: ফখরুল

এ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়: ফখরুল

খুলনা সিটি নির্বাচনের ব্যাপক অনিয়মেই প্রমাণ হয়েছে এ সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনই সুষ্ঠু হবে না— এ মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। একইসঙ্গে প্রধান নির্বাচন কমিশানারকে সরকারের আজ্ঞাবহ আখ্যা দিয়ে তার পদত্যাগের পাশাপাশি নির্বাচন কমিশন পুর্ণগঠনের দাবিও জানিয়েছন তিনি।

বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনে যৌথসভা শেষে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী পালন উপলক্ষে ১০ দিনের কর্মসূচিও ঘোষণা শেষে তিনি এ কথা বলেন।

খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে বাইরে রাখতেই সরকার তার প্রতি অমানবিক আচরণ করছে বলেও সমালোচনা করেছেন মির্জা ফখরুল।

খুলনা সিটি নির্বাচনে নজীরবিহীন অনিয়মের কথা তুলে ধরে মির্জা ফখরুল বলেন, এই সরকারের অধীনে কোন নির্বাচনই সুষ্ঠু হবে না।

সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে আজ্ঞাবাহ প্রধান নির্বাচন কমিশনার সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে উল্লেখ করে পুরো নির্বাচন কমিশনের পুর্ণগঠনের দাবিও জানান তিনি।

খালেদা জিয়ার অসুস্থ্যতায় উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে তার মুক্তিও চান বিএনপির এ মহাসচিব।

জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীর কর্মসূচি

এদিকে, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৭তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ১০ দিনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছে দলটি। ২৫ মে থেকে ৫ জুন পর্যন্ত এ কর্মসূচি পালন করবে তারা। যৌথসভা শেষে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কর্মসূচি ঘোষণা দেন।

কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে— ২৯ মে সকাল ১১টায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বিএনপির উদ্যোগে আলোচনা সভা, ৩০ মে ভোর ৬টায় নয়াপল্টন কার্যালয়ে দলীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা ও কালো পতাকা উত্তোলন, ওই দিন সকাল ১০টায় দলের মহাসচিবের নেতৃত্বে বিএনপির সব পর্যায়ের নেতাকর্মী জিয়াউর রহমানের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো, কবর জিয়ারত ও দোয়া মাহফিল, একই দিন সকালে নয়াপল্টন কার্যালয়ে ড্যাবের উদ্যোগে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি, ওই দিন ঢাকা মহানগরের প্রতিটি থানায় দুস্থদের মধ্যে কাপড় ও খাবার বিতরণ, বিভাগীয় শহরে জিয়া স্মৃতি পাঠাগারের উদ্যোগে বই মেলা আয়োজন, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের উদ্যোগে জাতীয় প্রেস ক্লাবে দিনব্যাপী আলোকচিত্র প্রদর্শনী, দলের পক্ষ থেকে পোস্টার প্রকাশ, কালো ব্যাজ ধারণ, সংবাদপত্র ও অনলাইন নিউজ পোর্টালে ক্রোড়পত্র প্রকাশ।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট