ওআইসির নতুন ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত বাংলাদেশ

ওআইসির নতুন ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত বাংলাদেশ

সৌদি আরবের জেদ্দায় ওআইসি শ্রম মন্ত্রীদের চতুর্থ ইসলামী সম্মেলনে দুই বছরের জন্য সংস্থাটির লেবার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে বাংলাদেশ। এছাড়া সম্মেলনের আয়োজক দেশ সৌদি আরব এই কাউন্সিলের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকালে জেদ্দায় ওআইসি শ্রম মন্ত্রীদের সম্মেলনে বাংলাদেশের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি যোগ দেন। সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ এবং জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল বোরহান উদ্দিনও এতে অংশ নেন।

সম্মেলনের পাশাপাশি মন্ত্রী সৌদি আরবের শ্রম ও সামাজিক উন্নয়ন বিষয়ক মন্ত্রী ড. আলি বিন নাসের আল গাফির সাথে বৈঠক করেন। প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী এ সময় বাংলাদেশের অভিবাসী শ্রমিকদের বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন এবং দক্ষ শ্রমিক নিয়োগে সহায়তা কামনা করেন।

এর আগে গত বুধবার শ্রম মন্ত্রীদের চতুর্থ ইসলামী সম্মেলনের জন্য সিনিয়র অফিসারদের প্রস্তুতিমূলক বৈঠকের উদ্বোধনী অধিবেশন হয়। এতে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক জুলহাস আহমেদ এবং বাংলাদেশ দূতাবাসের উপ-মিশন প্রধান ড. নজরুল ইসলাম সহ দূতাবাসের অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ যোগ দেন।

ইসলামী সম্মেলন সংস্থার (ওআইসি) সদস্য দেশগুলোর মধ্যে কর্মসংস্থান এবং সামাজিক সুরক্ষা সহযোগিতার জন্য ওআইসি ফ্রেমওয়ার্কের কার্যকারিতা বাড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম। বৃহস্পতিবার সৌদি আরবের জেদ্দায় ওআইসির শ্রম মন্ত্রীদের সম্মেলনে তিনি এ আহ্বান জানান।

এসময় তিনি বলেন, কর্মক্ষেত্রে পেশাগত নিরাপত্তা এবং স্বাস্থ্যের উপর গুরুত্ব বাড়াতে হবে, শ্রম এবং পেশাগত প্রশিক্ষণ পর্যবেক্ষকের জন্য দক্ষতা ব্যাংক, আইনি সুরক্ষা এবং শ্রম বাজার আইন, সামাজিক নিরাপত্তা সুরক্ষা জোরদার করতে হবে।

জেদ্দায় ‘মানবসম্পদ উন্নয়নের জন্য একটি সাধারণ কৌশল প্রণয়ন’ বিষয়ে ওআইসি শ্রম মন্ত্রীদের চতুর্থ ইসলামি সম্মেলন শুরু হয়েছে। সৌদি আরবের শ্রম ও সামাজিক উন্নয়ন মন্ত্রণালয় এবং ইসলামী সহযোগিতা সংস্থা (ওআইসি) যৌথভাবে এ সম্মেলনের আয়োজন করে।

নুরুল ইসলাম বলেন, বর্তমানে বিশ্বব্যাপী নানা অস্থিরতা ও অর্থনৈতিক মন্দা সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশের অসাধারণ এবং স্থিতিশীল ম্যাক্রো-অর্থনৈতিক সূচক ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে একটি উন্নত দেশে পরিণত করবে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট