ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইট ওয়াশ করলো ভারত

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইট ওয়াশ করলো ভারত

এক ম্যাচ আগেই টেস্ট ও ওয়ানডের মতো টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছিল ভারত। রোববার স্বাগতিকরা অপেক্ষায় ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশের লজ্জা দিতে। শেষ পর্যন্ত সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে শিখর ধাওয়ান ও রিশাব পান্তের ব্যাটে শেষ বলের রোমাঞ্চে জিতে সেটাই করেছে রোহিত শর্মার দল। ৬ উইকেটের এই জয়ে ৩-০ তে এগিয়ে থেকে সিরিজ শেষ করল তারা।

আগে ব্যাট করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৩ উইকেটে করে ১৮১ রান। ভারত জবাবে ৪ উইকেট হারিয়ে করে ১৮২ রান।

চেন্নাইয়ে টস জিতে ব্যাট করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ভারতের বোলিং আক্রমণে এদিন ছিলেন না কুলদীপ যাদব, উমেশ যাদব ও জসপ্রীত বুমরাহ। স্বাগতিকদের এই শূন্যতার সুযোগে শুরু থেকে মারকুটে ছিল উইন্ডিজ। প্রথম পাওয়ার প্লেতে বিনা উইকেটে ৫১ রান করে তাদের দুই ওপেনার শাই হোপ ও শিমরন হেটমায়ার।

যুজবেন্দ্র চাহাল তার টানা দুই ওভারে দুজনকে ফিরিয়ে রানের গতি কিছুটা কমান। হোপ ২৪ ও হেটমায়ার ২৬ রানে আউট হন। ১৩তম ওভারের পঞ্চম বলে দিনেশ রামদিন (১৫) বিদায় নিলে ঝড় তোলেন নিকোলাস পুরান ও ড্যারেন ব্রাভো।

শেষ ৭.১ ওভারে তারা ৮৭ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েন। ২৫ বলে চারটি করে চার ও ছয়ে ৫৩ রানে অপরাজিত ছিলেন পুরান। দুটি করে চার ও ছয়ে ৩৭ বলে ৪৩ রানে খেলছিলেন ব্রাভো।

চাহাল ভারতের পক্ষে সবচেয়ে বেশি দুই উইকেট নেন।

জবাব দিতে নেমে ৫.২ ওভারে ৪৫ রানে ভারত দুই উইকেট হারায়। কিন্তু শিখর ধাওয়ান ও ঋষভ পন্থর দুর্দান্ত হাফসেঞ্চুরিতে জয়ের পথে ফেরে স্বাগতিকরা। ১৩০ রানের দুর্দান্ত এক জুটি গড়ে মাঠ ছাড়েন পন্থ। জয় থেকে ৭ রান দূরে থাকতে তাকে বোল্ড করেন কিমো পল। ৩০ বলে টি-টোয়েন্টির প্রথম ফিফটি হাঁকান পন্থ। তার ৫৮ রানের ঝড়ো ইনিংস সাজানো ছিল ৫ চার ও ৩ ছয়ে, বল খেলেছেন ৩৮টি।

তবে পলের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ম্যাচে উত্তেজনা ফেরে। শেষ ওভারে ৫ রান দরকার ছিল ভারতের। কিন্তু ফ্যাবিয়ান অ্যালেনের পঞ্চম বলে ধাওয়ান আউট হলে শেষ বলে তাদের দরকার পড়ে ১ রান। মনীষ পান্ডে সেই রানটা নিয়ে দলকে জেতান।

৬২ বলে ১০ চার ও ২ ছয়ে ৯২ রানের ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলেন ধাওয়ান।

 

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট