কেউ অনিয়ম করলে আমাদের ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে: প্রধানমন্ত্রী

কেউ অনিয়ম করলে আমাদের ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে: প্রধানমন্ত্রী

দুর্নীতি ও অনিয়মের সঙ্গে জড়িত থাকলে রাজনৈতিক সম্পর্ক নির্বিশেষে সকলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে বলে সতর্ক করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘আমি একটা কথা স্পষ্ট বলতে চাই, কেউ অসৎ পথে উপার্জন করলে, অনিয়ম, উচ্ছৃঙ্খলতা বা অসৎ কাজে জড়িত থাকলে, যদি ধরা পড়ে, তবে সে যেই হোক না কেন, আমার দলের হলেও ছাড় হবে না, তাদের বিরুদ্ধে আমাদের ব্যবস্থা অব্যাহত থাকবে।’

শনিবার বিকালে নিউইয়র্কের ম্যারিয়ট মারকুইজ হোটেলে ইউএসএ চ্যাপ্টার অব আওয়ামী আয়োজিত এক নাগরিক সংবর্ধনায় প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

সরকার জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ, মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘যারা সৎভাবে জীবনযাপন করতে চায়, তাদের জন্য বা তাদের ছেলেমেয়েদের জন্য সৎভাবে জীবনযাপন করা কঠিন হয়ে যায়। আর যারা অসৎ উপায়ে অর্থ উপার্জন করে তারা ব্যয়বহুল ব্র্যান্ড এবং বিলাসবহুল জীবনযাপনে সেই অর্থ ব্যয় করতে পারে। এর ফলে একজন অসৎ মানুষের তুলনায় সৎ মানুষদের জীবনযাপন কঠিন হয়ে পড়ে। সমাজের এই বৈষম্য দূর করার জন্য সরকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তার সরকার বিশাল আর্থিক বাজেট দিয়েছে এবং ব্যাপক উন্নয়ন প্রকল্প গ্রহণ করেছে। কিন্তু এসব উন্নয়ন প্রকল্পের প্রতিটি টাকা যদি সঠিকভাবে ব্যয় করা হতো তবে আজকে বাংলাদেশ আরও অনেক বেশি উন্নত হতো পারত।

তিনি সতর্ক করে বলেন, ‘এখন আমাদের খুঁজে বের করতে হবে এখানে ফাঁকফোকর কোথায় এবং কারা এসব উন্নয়ন প্রকল্প ক্ষতিগ্রস্ত করছে।’

শেখ হাসিনা জানান, সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের আয়-উপাজন কত এবং তারা কিভাবে জীবনযাপন করে সেগুলো খুঁজে বের করতে তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন।

 ‘এভাবে আমরা দুর্নীতি ও বৈষম্য দূর করে সমাজ ও ভবিষ্যত প্রজন্মকে রক্ষা করতে পারব,’ উল্লেখ করেন তিনি।

দুর্নীতির পাশাপাশি মাদকের বিরদ্ধে সরকারের কঠোর অবস্থানের কথা জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এই মাদক একটা পরিবার ধ্বংস করে, একটা দেশ ধ্বংস করে। এর সঙ্গে কারা আছে সেটাও আমরা খুঁজে বের করব।’

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের জনগণের জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে তার সরকারের পদক্ষেপসমূহ তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী।

বাংলাদেশের আরও উন্নয়নের জন্য প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিনিয়োগের আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘আমরা ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপন করছি, আপনারা সেখানেও বিনিয়োগ করতে পারেন।’

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট