কোটা সংস্কারের দাবিতে দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ

কোটা সংস্কারের দাবিতে দেশের সব বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে রাজধানী ছাড়াও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।

আন্দোলনকারীরা কোটার সংস্কারের পাশাপাশি ঢাকায় শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার বিচার দাবিও করছেন তারা।

সোমবার সকাল থেকে দেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠগুলোতে এ আন্দোলন শুরু হয়েছে তবে দুপুর পর্যন্ত কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

রাজশাহী: রাজশাহীতে সকাল ১০টার দিকে শিক্ষার্থীরা ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে সেখানে অবস্থান নেন। এছাড়া কোনো বিভাগে ক্লাস অনুষ্ঠিত হয়নি।

তাদের উত্থাপিত দাবিগুলো হলো-কোটা সংস্কার করে ১০ শতাংশে নামিয়ে আনা, কোটার শূন্য পদগুলোতে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ, চাকরি পরীক্ষায় কোটা সুবিধা একবারের বেশি নয়, কোটায় বিশেষ নিয়োগ বন্ধ এবং চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা অভিন্ন করতে হবে।

এর আগে, সকাল ৯টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের সামনে আসেন। পরে সেখান থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে অবস্থান নেন শিক্ষার্থীরা। এতে রাস্তার দু’পাশে যানজট সৃষ্টি হয়। পরে শহর অভিমুখী ও বর্হিগামী যানবাহনগুলোকে বাইপাস সড়ক দিয়ে চলাচলের নির্দেশনা দেয় পুলিশ।

চট্টগ্রাম:ঢাকায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর ‘পুলিশ ও ছাত্রলীগের হামলার’ প্রতিবাদে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস বর্জন করে রাস্তায় নেমেছেন শিক্ষার্থীরা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত অন্দোলনকারীরা অনির্দিষ্টকালেরর জন্য ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন। পাশাপাশি নগরীর ষোলশহরে কোটা সংস্কারের দাবিতে বিক্ষোভ করছেন তারা।

সকাল ১০টার দিকে বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থীরা প্রথম ক্লাস বর্জন করে রাস্তায় নেমে পড়েন। পরে প্রত্যেক বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীরা একাত্মতা জানিয়ে তাদের সঙ্গে শরিক হন। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সবাই শাটল ট্রেন স্টেশনে অবস্থান নিয়ে কর্মসূচি পালন করছেন।

সিলেটঃ সিলেটে বিদ্যমান কোটা ব্যবস্থার সংস্কারের দাবিতে ঢাকার শাহবাগে সাধারণ ছাত্রদের ওপর ‘পুলিশের আক্রমণের’ প্রতিবাদে একাত্বা ঘোষণা করেছে তারা।

কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করছেন।

সকাল থেকে শুরু হওয়া এ বিক্ষোভ মিছিল পুরো ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করছে। বিভিন্ন বিভাগ ও হল থেকে ছাত্রছাত্রীরা বের হয়ে মিছিলে যোগ দিচ্ছেন। বেশির ভাগ বিভাগেই ক্লাস–পরীক্ষা হয়নি। তবে প্রক্টর মাহবুবর রহমান দাবি করেন, ক্যাম্পাসে ক্লাস পরীক্ষা স্বাভাবিক রয়েছে।

তবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে প্রক্টর মাহবুবর রহমান বলেন, ‘ক্যাম্পাসে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। আমি প্রধান ফটকের সামনে আছি। আশা করছি, কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এই ক্যাম্পাসে ঘটবে না।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের এক ছাত্রী বলেন, সকাল ৯টা থেকে ক্লাস শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ছাত্রছাত্রীরা সবাই এ যৌক্তিক আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন এ জন্য কোনো ক্লাস হচ্ছে না।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট