কোহলি–রোহিতের ব্যাটে উইন্ডিজকে গুঁড়িয়ে ভারত

কোহলি–রোহিতের ব্যাটে উইন্ডিজকে গুঁড়িয়ে ভারত

শিমরন হেটমায়ারের আগ্রাসী ব্যাটিংয়ে প্রত্যাশার চেয়েও বেশি রান করেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ- ৩২২ রান। কিন্তু এই রানকেও ছেলেখেলা করল ভারত। গৌহাটিতে অধিনায়ক বিরাট কোহলি ও রোহিত শর্মার সেঞ্চুরি ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ভারতকে এনে দিলো দারুণ শুরু।

রবিবার প্রথম ওয়ানডেতে ৪৭ বল হাতে রেখে ৮ উইকেটে জিতেছে ভারত। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেটে ৩২২ রান করে উইন্ডিজ। ৪২.১ ওভারে ভারত ২ উইকেটে করে ৩২৬ রান।

আগে ব্যাট করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ নির্ধারিত ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে তোলে ৩২২ রান। জবাবে, ৪২.১ ওভারে মাত্র ২ উইকেট হারিয়ে ভারত জয়ের বন্দরে পৌঁছে। ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ২০তম সেঞ্চুরি পান রোহিত শর্মা আর কোহলি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৬তম সেঞ্চুরির দেখা পান। ওয়ানডেতে ৪৯টি সেঞ্চুরি করে শীর্ষে ভারতীয় ব্যাটিং গ্রেট শচীন টেন্ডুলকার।

এই ম্যাচের মধ্যদিয়ে ভারতের ওয়ানডেতে অভিষেক হয় রিশব প্যান্টের। আর ক্যারিবীয়ানদের হয়ে অভিষেক হয় ওপেনার চন্দরপল হেমরাজ এবং পেসার ওশান থমাসের। ওপেনিংয়ে নামেন কিয়েরন পাওয়েল এবং অভিষিক্ত হেমরাজ। ব্যক্তিগত ৯ রান করে ফেরেন হেমরাজ। আরেক ওপেনার পাওয়েল করেন ৩৯ বলে ৫১ রান। তিন নম্বরে নামা শাই হোপ করেন ৩২ রান। মারলন স্যামুয়েলস কোনো রান না করেই বিদায় নেন।

রভম্যান পাওয়েল ২২ আর অধিনায়ক জ্যাসন হোল্ডার ৩৮ রান করেন। ৭৮ বলে ৬টি চার আর ৬টি ছক্কায় ১০৬ রান করেন ১৩ ওয়ানডে ম্যাচ খেলতে নামা শিমরন হেটমেয়ার। এটি তার তৃতীয় ওয়ানডে সেঞ্চুরি। শেষ দিকে ২৬ বলে ২২ রান করে অপরাজিত থাকেন দেবেন্দ্র বিশু এবং ২২ বলে ২৬ রান করে অপরাজিত থাকেন কেমার রোচ।

ভারতের হয়ে পাঁচ বোলার ১০ ওভার করে বল করেছেন। ৮১ রান খরচায় দুটি উইকেট পান মোহাম্মদ শামি, ৬৪ রান খরচায় কোনো উইকেট পাননি উমেষ যাদব, ৬৪ রান খরচায় একটি উইকেট পান খলিল আহমেদ, ৪১ রানের বিনিময়ে তিনটি উইকেট নেন যুভেন্দ্র চাহাল এবং ৬৬ রানের বিনিময়ে দুটি উইকেট পান রবীন্দ্র জাদেজা।

৩২৩ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় ১০ রানের মাথায় বিদায় নেন ভারতের ওপেনার শিখর ধাওয়ান (৪)। এরপর ২৪৬ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং ওপেনার রোহিত শর্মা। দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে দলীয় ২৫৬ রানের মাথায় কোহলি আউট হওয়ার আগে করেন ১৪০ রান। এটি তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৩৬তম সেঞ্চুরি, যা ক্রিকেট ইতিহাসে ওয়ানডেতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। কোহলি ১০৭ বল খেলে ২১টি চারের পাশাপাশি দুটি ছক্কাও হাঁকান। ৯৬ রানই এসেছে বাউন্ডারি থেকে।

রোহিত শর্মা ১১৭ বলে ১৫টি চার আর ৮টি ছক্কায় ১৫২ রান করে অপরাজিত থাকেন। ২২ রানে অপরাজিত থাকেন আম্বাতি রাইডু। বিশু ও থমাস একটি করে উইকেট পান।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট