খালেদার নির্বাচনে অংশ নেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন উচ্চ আদালত

খালেদার নির্বাচনে অংশ নেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন উচ্চ আদালত

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া অংশ নিতে পারবেন কিনা- এমন আলোচনার মধ্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, সব ধরনের জটিলতা কাটিয়ে খালেদা জিয়া নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন বলেই তার প্রত্যাশা।

সোমবার প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এমন প্রত্যশা ব্যক্ত করেন।

এ সময় সিইসি বলেন, ‘আমার কাছে যেটা মনে হয় খালেদা জিয়া এখন যে অবস্থায় আছেন, তাতে তিনি আগামী নির্বাচন করতে পারবেন না। তবে তার বিষয়টি যদি উচ্চ আদালতে আসে এবং পরবর্তীতে আদালত যদি কোনো নির্দেশনা দেন সেটি বিবেচ্য বিষয় হবে।’

দুপুর দুইটার পর সুপ্রিম কোর্টে আসেন সিইসি। প্রধান বিচারপতির সঙ্গে প্রায় আধাঘণ্টার বৈঠক শেষে  দুইটা ৩৫ মিনিটে বের হন তিনি।

আগামী নির্বাচন নিয়ে প্রধান বিচারপতির সাথে কোনো কথা হয়েছে কিনা- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে নুরুল হুদা বলেন, ‘না এ ধরনের কোনো কথাই হয়নি। এটা শুধুমাত্র সৌজন্য সাক্ষাৎ।’

একটি দুর্নীতি মামলায় দণ্ড পাওয়ার পর থেকে রাজনৈতিক মহলে আলোচনা খালেদা জিয়া আগামী সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে ৫ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। এছাড়াও দলটির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

এ মামলার অন্য চার অাসামীকে বিএনপির সাবেক সাংসদ কাজী সালিমুল হক কামাল, সাবেক মুখ্য সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগনে মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তাছাড়াও আত্মসাত করা ২ কোটি, ১০ লাখ ৭১ হাজার টাকা খালেদা জিয়া বাদে অন্য অাসামীদের জরিমানা করেছেন আদালত।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
নিজস্ব প্রতিবেদক