খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে রায় ঘোষণায় বাধা নেই: আপিল বিভাগ

খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে রায় ঘোষণায় বাধা নেই: আপিল বিভাগ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতেই জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় রায় প্রদানের আদেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

বিচারিক আদালতে মামলাটির রায় না প্রদানে খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের করা লিভ টু আপিল খারিজ করে দিয়ে এই আদেশ দেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন সাত সদস্যের আপিল বেঞ্চ।

এর আগে হাইকোর্টও খালেদা জিয়ার করা আবেদন খারিজ করে দেয়। আজ আপিল বিভাগ হাইকোর্টের আদেশ বহাল রাখলেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, আপিল বিভাগ লিভ টু আপিল খারিজ করে দেয়ায় এই মামলার বিচারিক আদালতের রায় প্রদানের বাধা কাটলো।

এর আগে রবিবার খালেদা জিয়ার আপিল আবেদনটির উপর শুনানি গ্রহণ করে আজ আদেশের জন্য দিন ঠিক করেছিল আপিল বিভাগ।

আজ সোমবার বিশেষ জজ আাদালতে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার রায় প্রদানের দিন ধার্য রয়েছে।

গত ১৪ অক্টোবর বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এসএম কুদ্দুস জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ একটি রিট পিটিশন খারিজ করে খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় রায় প্রদানের আদেশ দেন।

এই আদেশের বিরুদ্ধে ১৮ অক্টোবর সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে লিভ টু আপিল আবেদন করে খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা।

এর আগে ২০ সেপ্টেম্বর বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক মো. আকতারুজ্জামান প্রধান আসামি খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে মামলার যুক্তিতর্ক চালানোর আদেশ দেন।

বিচারিক আদালতের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ২৭ সেপ্টেম্বর বিএনপি চেয়ারপারসন হাইকোর্টে একটি রিট পিটিশন দায়ের করেন। এরই মধ্যে গত ১৬ অক্টোবর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার রায় ঘোষণার জন্য ২৯ অক্টোবর দিন ধার্য করে বিচারিক আদালত।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায় হওয়ার পর চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে নাজিম উদ্দিন রোডের পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন খালেদা জিয়া। এই অবস্থায় খালেদা জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় অসুস্থতা দেখিয়ে আদালতে অনুপস্থিত থাকেন।

এরপর সরকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর কার্যক্রম পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করে। তারপর থেকে খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতেই এই মামলার কার্যক্রম শেষ করা হয়।

২০১১ সালের আগস্ট মাসে তেজগাঁও থানায় দুর্নীতি দমন কমিশন দায়ের করা  এ মামলায় খালেদা জিয়া ছাড়া ও আরও তিনজনের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের মামলা করা হয়।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট