খাশোগি হত্যাকাণ্ডের রেকর্ডিং সৌদিসহ ৫ দেশকে দেওয়া হয়েছে: এর্দোগান

খাশোগি হত্যাকাণ্ডের রেকর্ডিং সৌদিসহ ৫ দেশকে দেওয়া হয়েছে: এর্দোগান

মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের কলাম লেখক ও সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার রেকর্ডিং সৌদি আরবের পাশাপাশি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, জার্মানি ও ফ্রান্সকে দেওয়া হয়েছে। তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এর্দোগান শনিবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

ফ্রান্সের উদ্দেশ্যে তুরস্ক ত্যাগের আগে তিনি আরও বলেছেন, জামাল খাশোগিকে হত্যার একদিন আগে ১৫ জনের যে দলটি তুরস্কে এসেছিল, হত্যাকারী যে তাদের মধ্যেই রয়েছে তা সৌদি আরবের জানা আছে। তুরস্কের কাছে হত্যাকাণ্ডের অডিও রেকর্ডিং রয়েছে বলে এর আগে জানানো হয়েছিল। তবে রেকর্ডিং যে ওই পাঁচ দেশকেও দেওয়া হয়েছে তা এই প্রথম জানানো হলো।

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ সমাপ্তির ১০০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ফ্রান্সে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দিতে এর্দোগান আজ সেদেশে গেছেন। এর আগেও এর্দোগান এক নিবন্ধে লিখেছেন, আমরা জানি সৌদি আরবে আটক ১৮ সন্দেহভাজন ব্যক্তির মধ্যে হত্যাকারী আছে এবং তারা শুধু আদেশ পালন করেছে। আমরা জানতে পেরেছি সৌদি সরকারের উচ্চপর্যায় থেকেই খাশোগিকে হত্যার আদেশ দেয়া হয়।

এর আগে এর্দোগান বলেছিলেন, মুসলমান হিসেবে অন্তত ইসলামের রীতি অনুসারে সমাহিত হওয়ার অধিকার খাশোগির রয়েছে। এক্ষেত্রে আমরা তার পরিবার, বন্ধু ও সহকর্মীদের কাছে দায়বদ্ধ। সম্মানিত এই ব্যক্তিকে শেষ বিদায় এবং সম্মান জানানোর সুযোগ দেয়া উচিত তার পরিবার, বন্ধু ও সহকর্মীদের।

জামাল খাশোগি গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেট ভবনে ঢোকার পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন। প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে আন্তর্জাতিক চাপের মুখে সৌদি আরব স্বীকার করে, খাশোগিকে কনস্যুলেট ভবনের ভেতরে হত্যা করা হয়েছে। এখনো পর্যন্ত খাশোগির মৃতদেহের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। সৌদি আরবও এ বিষয়ে কোনো তথ্য দেয়নি। সম্প্রতি খবর বেরিয়েছে, হাইড্রোফ্লুরিক অ্যাসিড দিয়ে তার মরদেহ গলিয়ে ফেলা হয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট