গাঁটের ব্যথায় ভুগছেন? জেনে নিন কিছু ঘরোয়া টোটকা

গাঁটের ব্যথায় ভুগছেন? জেনে নিন কিছু ঘরোয়া টোটকা

সকালে উঠে পা ফেলতে কষ্ট হয়? অসহ্য হাঁটুর ব্যথায় ভুগছেন? হাঁটুর ব্যথা বা গাঁটের সমস্যা এখন আর বয়সের গণ্ডিতে আটকে নয়। যে কোনও বয়সেই হানা দিতে পারে এই সমস্যা। ক্যালসিয়ামের অভাব, অনিয়মিত ডায়েট, শরীরচর্চার ঘাটতি গাঁটের ব্যথার মূল কারণ। আসুন দেখে নেওয়া ব্যথা উপশমের কিছু ঘরোয়া নিদান।

Turmeric and ginger tea

হলুদ ও আদা চা: দু’কাপ জলে হলুদ ও আদা ফুটিয়ে সেটিকে হাফ কাপ করুন। এ বার ওই মিশ্রণে এক চামচ মধু মিশিয়ে দিনে অন্তত দু’বার খান। হলুদ ও আদায় রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ব্যথা নিরাময়ে সক্রিয় ভূমিকা নেয়। হলুদের মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট কারকিউমিন ব্যথা তৈরি করা হরমোনের নিঃসরণ কমিয়ে দেয়।

Epsom salt soak

লবন জলের সেঁক: সৈন্ধব লবনের কথা জানেন নিশ্চয়ই? ম্যাগনেসিয়াম সালফেট সমৃদ্ধ সৈন্ধব লবন যে কোনও ব্যথা-বেদনা উপশমে খুবই উপকারী। এক কাপ সৈন্ধব লবন জলের মধ্যে মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। এ বার সেটা ফুটিয়ে ব্যথার জায়গায় সেঁক দিন। লবন-জলে স্নান করলেও আরাম পাবেন।

Alternating hot and cold packs

ঠান্ডা-গরম প্যাক: চিকিৎসকের পরামর্শ মতো থেরাপিউটিক জেল কিনে নিন। এ বার সেটা গরম করে ব্যথার জায়গায় ১৫ মিনিট ধরে মালিশ করুন। জায়গাটা গরম হয়ে উঠলে প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই সেখানে বরফ লাগিয়ে নিন। এই ভাবে পালা করে গরম জেল এবং বরফের সেঁক নিন। ব্যথা দ্রুত নিরাময় হয়ে যাবে।

 Fenugreek

মেথি: যে কোনও জ্বালা-যন্ত্রণা কমাতে মেথির জুরি মেলা ভার। এর মধ্যে রয়েছে উচ্চমাত্রায় অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। গাঁটের ব্যথায় কষ্ট পেলে প্রতিদিন নিয়ম করে উষ্ণ গরম জলে মেথি বীজ ভিজিয়ে খেতে পারেন। অথবা, সারা রাত ভিজিয়ে রাখা মেথির জল সকালে খালি পেটে খেলেও অনেক উপকার পাবেন।

Apple cider vinegar

অ্যাপেল সিডার ভিনিগার: অ্যাপেল সিডার ভিনিগারে রয়েছে ম্যাগনেসিয়াম, ক্যালসিয়াম, পটাসিয়াম এবং ফসফরাস যা আক্রান্ত জায়গার টক্সিন টেনে বার করে দেয়। বাতের ব্যথা কমাতেও উপকারী এটি। এক কাপ উষ্ণ গরম জলে দু’চামচ ভিনিগার ও কয়েক ফোঁটা মধু মিশিয়ে দিনে ৩-৪ বার খান। অ্যাপেল সিডারে ওলিভ ওয়েল মিশিয়ে মালিশ করলেও উপকার পাবেন।

Carrot and lime juice

গাজর-লেবুর জুস: দু’টো গাজর পিষে তার রস বার করে নিন। এ বার তাতে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে জুস বানিয়ে খালি পেটে খান। নিয়মিত এই জুস খেলে কিছুদিন বাদেই টের পাবেন ব্যথা অনেক কমে গিয়েছে।

Peppermint and eucalyptus oil mixture

পিপারমিন্ট ও ইউক্যালিপটাস তেল: ব্যথা নিরাময়ে পিপারমিন্ট এবং ইউক্যালিপটাস তেলের কোনও তুলনাই নেই। ৫-৬ ফোঁটা পিপারমিন্ট ও ইউক্যালিপটাস তেলের সঙ্গে নারকেল, ওলিভ বা আমন্ড তেল মিশিয়ে ব্যথার জায়গায় নিয়মিত মালিশ করলে অনেক উপকার পাবেন।

Cayenne pepper

লঙ্কা গুঁড়ো: লাল লঙ্কাতে রয়েছে ব্যথানাশক উপাদান ক্যাপসাইসিন। বিশেষজ্ঞদের কথায়, অস্টিওআর্থ্রাইটিসের ব্যথা উপশমে খুবই উপকারী এই ক্যাপসাইসিন। হাফ কাপ নারকেল তেলে দু’চামচ লঙ্কা গুঁড়ো মিশিয়ে ব্যথার জায়গায় মালিশ করুন। এ বার ২০ মিনিট রেখে উষ্ণ গরম জলে জায়গাটা পরিষ্কার করে নিন। দিনে ৪-৫ বার এই ভাবে মালিশ করুন। ব্যথা অনেক কমে যাবে।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট