গ্যাস সিলিন্ডারের নিরাপদ ব্যবহারে কিছু পরামর্শ

গ্যাস সিলিন্ডারের নিরাপদ ব্যবহারে কিছু পরামর্শ

রাজধানীতে গ্যাস সংকটের কারণে এবং সারাদেশের গৃহস্থালীতে অনেকেই লাকড়ির বিকল্প হিসেবে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহার করতে শুরু করেছেন। এতে করে আগের চেয়ে এখন গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবহারকারীর সংখ্যা উল্লেখ্যযোগ্য হারে বেড়েছে। বেড়েছে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দুর্ঘটনাও। অথচ সাধারণ কিছু নিয়ম জানা থাকলেই সহজে এড়ানো যেতে পারে এ ভয়াবহ দুর্ঘটনা। নিচে সেরকমই কিছু সতর্কতা উল্লেখ করা হল:

  • এমন জায়গায় সিলিন্ডার রাখবেন না যাতে করে সিলিন্ডার গরম হয়ে যেতে পারে। দুটি সিলিন্ডার রাখার ক্ষেত্রে অবশ্যই দশফুট জায়গা থাকা জরুরি।
  • ব্যবহার শেষে খালি সিলিন্ডার থেকে গ্যাসের রেগুলেটর খোলার সময় আশেপাশে কোনো জ্বলন্ত মোমবাতি বা জ্বলন্ত কোন কিছু রাখবেন না।
  • গ্যাস সিলিন্ডারের সঙ্গে যে রাবার পাইপটি থাকে, সেটিতে ‘আইএসআই’ ছাপ থাকা বাধ্যতামূলক। কিন্তু তার সঙ্গে আরো একটি বিষয় খেয়াল রাখুন, গ্যাসের পাইপটি যেন দৈর্ঘ্যে এক থেকে দেড় ফুটের বেশি লম্বা না হয়। সে ক্ষেত্রে পাইপ পরীক্ষার সময় অসুবিধা হবে।
  • রেগুলেটরের নজলটি যাতে পাইপ দিয়ে ভালো করে ঢাকা থাকে, তা লক্ষ্য রাখুন। গরম বার্নারের সঙ্গে যাতে গ্যাসের পাইপ কোনোভাবে লেগে না থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখুন।
  • অনেকেই দেখা যায় সাবান দিয়ে পাইপ পরিস্কার করে থাকে। ভুলেও এ কাজটি করবেন না। পাইপ পরিস্কার করতে ভিজে কাপড় ব্যবহার করুন । একটি পাইপ দুই বছরের বেশি ব্যবহার করা ঝুঁকিপূর্ণ।
  • সিলিন্ডারের উপর কখনো কোনো কাপড় বা থালাবাসন ইত্যাদি রাখবেন না।
  • পাইপকে কোন কিছু দিয়ে না মুড়ে উন্মুক্ত রাখুন। এতে করে লিক হলে সহজে বুঝতে পারবেন এবং দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পাবেন।
  • গ্যাস লিক হচ্ছে বুঝতে পারলে বাড়ির কোনো ইলেক্ট্রিক অ্যাপ্লায়েন্স অন করবেন না। ওভেন, রেগুলেটর বন্ধ করে দরজা জানালা খুলে দিন।
  • গ্যাস লিক করার পর যদি কিছুক্ষণের মধ্যে গন্ধ বন্ধ না হয়, তাহলে গ্যাস ডিস্ট্রিবিউটরের অফিস বা হেল্পলাইন নম্বরে ফোন করুন। সিলিন্ডার থেকে রেগুলেটর আলাদা করে দিয়ে সিলিন্ডারের মুখে সেফটি ক্যাপও পরিয়ে দিতে পারেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট