চোখ কচলানো বদ অভ্যাস থেকে বিরত থাকুন এখনই!

চোখ কচলানো বদ অভ্যাস থেকে বিরত থাকুন এখনই!

বেশ অনেকটা সময় কাজ করে ক্লান্তি দূর করার জন্য চোখ ডলতে বা কচলাতে শুরু করলেন।আরাম বোধ করলেন কিছুটা।ঠিক একইভাবে পরের বার ক্লান্তি আসলে একইভাবে ক্লান্তি দূরীকরণের চেষ্টা করলেন। সাময়িক আরাম বোধ করলেও এই চোখ ডলাতে হতে পারে অনেক বড় ক্ষতি।

মাঝে মাঝে হালকা চুলকানি থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য অল্প চোখ ডলা তেমন ক্ষতিকর হবে না, কিন্তু ঘন ঘন চোখ ডলার কারণে আপনার দৃষ্টিশক্তি নষ্ট হতে পারে। চোখ ডলনে তাহলে ভাল অনুভূত হয় কেন?

ডিউক আই সেন্টারের কম্প্রিহেনসিভ অপথ্যালমোলজির প্রধান অনুপমা বি. হর্নের মতামত অনুসারে, ‘সাধারণত আমাদের চোখ চুলকালে বা চোখে জ্বালাতন হলে আমরা চোখ ডলার তাড়না অনুভব করি অথবা মানসিক চাপে ভুগলেও আমাদের মধ্যে চোখ ডলার প্রবণতা তৈরি হতে পারে।’

তিনি যোগ করেন, ‘চোখ ডলন অশ্রু উৎপাদনে প্ররোচিত করে যা শুষ্ক অথবা ক্লান্ত চোখকে আর্দ্র করতে সাহায্য করে এবং যেকোনো জ্বালাময় পার্টিকেল দূর করে।’ তিনি আরো বলেন, ‘চোখ ডলন অকিউলোকার্ডিয়াক রিফ্লেক্সকে প্রণোদিত করতে পারে, যেখানে আইবলের ওপর চাপ হৃদকম্পনকে ধীর করে এবং মানসিক চাপ হ্রাসের অনুভূতির দিকে ধাবিত করে।’

এ কারণে দ্রুত চোখ ডলার পর আপনি দ্রুত ভালো অনুভব করতে পারেন, কারণ ডলন আপনার হৃদকম্পনকে ধীর করে আপনাকে শান্ত রাখে।’ চোখ ডললে বা কচলালে কি ক্ষতি হতে পারে?

ডা. হর্ন জানান, ‘জোরে জোরে ও প্রায় সময় চোখ ডলন আপনার চোখ ও পার্শ্ববর্তী গঠনপ্রণালীকে নষ্ট করতে পারে।’ যদি কোনো ধূলিকণা, চোখের পাতার লোম অথবা অপরিচিত পার্টিকেল চোখের পৃষ্ঠের ওপর পড়ে, তাহলে চোখ ডলনে আপনার কর্নিয়াতে স্ক্র্যাচ বা দাগ হতে পারে। স্ক্র্যাচযুক্ত কর্নিয়া আপনার চোখকে প্রচুর ব্যথা দিতে পারে। আপনার মনে হবে, চোখে কোনোকিছু বিঁধে আছে যা বের হচ্ছে না এবং প্রায় ক্ষেত্রে আপনার চোখ থেকে পানি ঝরতে পারে এবং চোখ দিয়ে দেখার সময় আলোতে সমস্যা হতে পারে।

চোখ ডলনের অন্য একটি সমস্যা হচ্ছে, চোখের সাদা অংশের রক্তনালী ছিঁড়ে যেতে পারে এবং এর ফলে আপনার চোখের সাদা অংশ লাল দেখাবে। চোখ ডলন আপনার চোখের আশপাশের ত্বককে কালো করতে পারে এবং লাল চোখের সঙ্গে কালো দাগ বা ডার্ক সার্কেলের কারণে আপনাকে ক্লান্ত ও বার্ধক্যগ্রস্ত দেখাতে পারে।

কি করে বুঝবেন যে আপনি অনেক চোখ ডলেন?

ভেবে দেখুন চোখ ডলন আপনার অভ্যাসে পরিণত হয়েছে কিনা। আপনি নিয়মিত বা প্রতি ঘণ্টায় এমনটি করেন কিনা। যদি সব উত্তর হ্যাঁ হয় তাহলে বুঝতে হবে আপনি এতে আসক্ত হয়ে যাচ্ছেন। যদি আপনার কন্ট্যাক্ট লেন্স পড়ার অভ্যাস থাকে তাহলে এই বিষয়ে সতর্ক হোন। এক্ষেত্রে চোখ থেকে কন্টাক্ট খুলে কর্নিয়াকে কন্টাক্টের স্ক্র্যাচ থেকে রক্ষা করতে পারেন।যাদের চোখে ল্যাসিক(LASIK) সার্জারি হয়েছিল তারাও চোখ ডলন জনিত ইনফেকশনের উচ্চ ঝুঁকিতে থাকে।

ডা. হর্ন বলেন, ‘ল্যাসিক প্রক্রিয়ায় কর্নিয়ার বহিঃস্থ স্তরে একটি ফ্ল্যাপ সৃষ্টি করা হয়, যার নিচে দৃষ্টিশক্তি ঠিক করার জন্য লেজার প্রয়োগ করা হয়।’ তিনি যোগ করেন, ‘ল্যাসিক প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে এমন চোখে ডললে ফ্ল্যাপে সমস্যা হতে পারে, যা কর্নিয়াল ইনজুরির দিকে ধাবিত করবে।’

এই সমস্যার সমাধান কিভাবে সম্ভব?

যদি আপনার চোখ আপনাকে বিরক্ত বা জ্বালাতন করে, তাহলে ডলার পরিবর্তে লুব্রিকেটিং আই ড্রপ ব্যবহার করতে পারেন এবং স্ট্রেস বা মানসিক চাপ থেকে মুক্তির জন্য চোখ না ডলে শান্ত হওয়ার জন্য স্ট্রেস হ্রাসের ব্রিদিং টেকনিক অনুসরণ করতে পারেন।আর কিছু সময় পর পর চোখে ঠান্ডা পানির ঝাপটা দিলেও এ থেকে আরাম মিলবে।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট