‘জাতির পিতার আদর্শের পথ ধরে দেশ এখন উন্নয়শীল হয়েছে’

‘জাতির পিতার আদর্শের পথ ধরে দেশ এখন উন্নয়শীল হয়েছে’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ দেশে একটি অর্থবহ নির্বাচনের মাধ্যমে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে চায়।

সোমবার সন্ধ্যায় গণভবনে জাতীয় পার্টির নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় জোটের সঙ্গে সংলাপের সূচনা বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

এ সময় দেশের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় জাতীয় পার্টি বিগত বছরগুলোতে সঙ্গে থাকায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি আরো বলেন, নির্বাচন সামনে রেখে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে এই সংলাপ শুধুমাত্র মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতার আদর্শের পথ ধরে দেশ এখন উন্নয়শীল হয়েছে। এই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে বর্তমান সরকার আবারো ক্ষমতায় আসতে চাই।

তিনি বলেন, নির্বাচন সামনে রেখে আমরা বাংলাদেশের বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে  মত বিনিময় করছি। আমরা চাই একটা অর্থবহ নির্বাচন করতে। এই নির্বাচনের মাধ্যমে আমাদের জাতির উন্নয়নের ধারা বজায় থাকবে।

এছাড়াও প্রতিনিধি দলে জাপা নেতাদের মধ্যে থাকছেন: রওশান এরশাদ, জিএম কাদের, এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, এম এ সাত্তার, কাজী হোসেন বাবলা, শহিদুল ইসলাম টেপা, শেখ মাহমুদ সিরাজুল ইসলাম, ফখরুল ইসলাম, মুজিবুল হক চুন্নু, সালমা ইসলাম, সুনীল শুভ রায়, এস এম এস এম ফয়সল চিশতী, মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরী, মশিউর রহমান রাঙা, আজম খান, সোলায়মান আলম শেঠ, আতিকুর রহমান আতিক, মেজর অবসরপ্রাপ্ত খালিদ আক্তার, শফিকুল ইসলাম সেন্টু, ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী, লিয়াকত হোসেন খোকন এমপি, নূরুল ইসলাম ওমর।

জাতীয় পার্টির নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় জোট থেকে এ সংলাপ আরও রয়েছেন: বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের চেয়ারম্যান এম এ মান্নান ও মহাসচিব এম এ মতিন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাহফুজুল মাহফুজুল হক-যুগ্ম মহাসচিব জালাল আহমেদ, জাতীয় ইসলামী মহাজোটের চেয়ারম্যান আবু নাসের ওয়াহেদ ফারুক ও বিএনএফের চেয়ারম্যান সেকেন্দার আলী মনি।

এর আগে, বৃহস্পতিবার ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে বিএনপি, গণফোরাম, নাগরিক ঐক্য, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) নিয়ে গঠিত ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়। পরদিন শুক্রবার সাবেক প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীর নেতৃত্বাধীন যুক্তফ্রন্টের সঙ্গে সংলাপ হয়।

শনিবার জেল হত্যা দিবসে কোন সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়নি। রোববার আওয়ামী লীগের নির্বাচনী জোটের অংশীদার ১৪ দলের সঙ্গে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সংলাপ চলবে ৭ নভেম্বর পর্যন্ত।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট