জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদ থেকে সৌদিকে বহিষ্কার করতে হবে: ইরান

জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদ থেকে সৌদিকে বহিষ্কার করতে হবে: ইরান

জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদ থেকে সৌদি আরবকে বহিষ্কারের আহ্বান জানিয়েছেন ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের সংসদ স্পিকারের বিশেষ সহকারি হোসেইন আমির আব্দুল্লাহিয়ান। সৌদি সরকার সেদেশের প্রখ্যাত সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যার কথা স্বীকার করার পর আমির আব্দুল্লাহিয়ান তার টুইটার পেইজে এ আহ্বান জানিয়েছেন।

আমির আব্দুল্লাহিয়ান আরও বলেছেন, ইয়েমেন ও বাহরাইনে মানবাধিকার লঙ্ঘন অব্যাহত রেখেছে সৌদি আরব। একইসঙ্গে সাংবাদিক জামাল খাশোগিকেও তারা হত্যা করেছে। এসব কারণে জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদের সদস্য হিসেবে থাকার অধিকার সৌদি আরবের নেই। দেশটিকে এই পরিষদ থেকে বহিষ্কার করা উচিত।

তিনি বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সৌদি আরবের সন্ত্রাসী তৎপরতাকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে। জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডের জন্যও ট্রাম্পকে জবাবদিহি করতে হবে। সৌদি আরবের এ বর্বরতার দায় ট্রাম্প এড়াতে পারে না বলে তিনি মন্তব্য করেন।

২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেট ভবনে ব্যক্তিগত কাগজপত্র আনার প্রয়োজনে ঢোকার পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন সৌদির খ্যাতনামা সাংবাদিক খাশোগি। শুরু থেকে তুরস্ক দাবি করে আসছে, খাশোগিকে কনস্যুলেট ভবনের ভেতর সৌদি ঘাতক টিমের সদস্যরা হত্যা করেছে।

গত বছর সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান ক্ষমতা গ্রহণের পর রোষানলে পড়েন খাশোগি। তিনি দেশ ছেড়ে স্বেচ্ছা নির্বাসনে চলে যান আমেরিকায়। ওয়াশিংটন পোস্ট-এ যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানের কর্মকাণ্ডের সমালোচনা করে একের পর এক কলাম লেখেন। অভিযোগ উঠেছে, যুবরাজের নির্দেশে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় এ হত্যা সংঘটিত হয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট