জাতীয় লিগে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন খুলনা

জাতীয় লিগে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন খুলনা

জাতীয় লিগে প্রথম স্তরের শেষ রাউন্ডে মঙ্গলবার ঢাকাকে ৯ উইকেটে হারিয়ে আবার জাতীয় ক্রিকেট লিগের শিরোপা জিতেছে খুলনা। এই নিয়ে রেকর্ড সাতবার শিরোপা জিতল দলটি।

২০১৫-১৬ মৌসুম থেকে টানা তিনবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল খুলনা। গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন হয়ে শিরোপা সংখ্যায় খুলনার পাশে বসেছিল রাজশাহী। এক মৌসুম পরেই শিরোপা জয়ের রেকর্ড আবারও নিজেদের করে নিল খুলনা।

শেষ দিনের দ্বিতীয় সেশনে ১১৭ রানের লক্ষ্যে নেমে এনামুল হকের ঝোড়ো ব্যাটিংয়ে সহজেই জয় পায় খুলনা।

আগের দিনের ৫ উইকেটে ১০২ রান নিয়ে এদিন মাঠে নেমেছিল ঢাকা। খেলা শুরু করেছিলেন দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান রকিবুল হাসান ৩৯ ও আরাফাত সানি জুনিয়র ৯ রান নিয়ে। খুলনার বোলারদের হতাশ করে মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত আর কোনো বিপদ হতে দেননি তারা। এর মাঝে রকিবুল তুলে নেন হাফসেঞ্চুরি।

বিরতির পর খেই হারায় ঢাকা। ৫ রানের মধ্যে শেষ ৪ উইকেট হারায় তারা। সতীর্থকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করায় ম্যাচের শেষ দুদিনের জন্য বহিষ্কৃত হওয়া শাহাদাত হোসেন ব্যাটিংয়ে নামতে পারেননি। এই পেসারকে নিষেধাজ্ঞাও দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

রানআউটে কাটা পড়ে দুর্ভাগ্যজনকভাবে সেঞ্চুরিবঞ্চিত হন রকিবুল। ২২৭ বলে ৪ চার ও ৩ ছয়ে ৯৯ রানে আউট হন তিনি। রকিবুলের বিদায়ে ভাঙে আরাফাতের সঙ্গে তার ১২৫ রানের ষষ্ঠ উইকেট জুটি। ফিফটি তুলে নিয়ে আরাফাত ফেরেন ১৪৮ বলে ৫৩ রান করে।

আগের দিন ৩ উইকেট নেওয়া খুলনার পেস অলরাউন্ডার জিয়াউর রহমান এদিন আরও ২ উইকেট নেন। ৫ উইকেট নিতে তার খরচা ৪৪ রান। স্পিনার নাহিদুল ২ উইকেট পান ৭৪ রানের বিনিময়ে।

১১৭ রানের সহজ লক্ষ্য রবিউল ইসলাম রবির উইকেট হারিয়ে ছুঁয়ে ফেলে খুলনা। ওপেনার এনামুল হক বিজয় মারমুখী ব্যাটিংয়ে ৭৬ বলে ৭৯ রানে অপরাজিত থাকেন। তিনি সমান ৪টি করে চার ও ছয় মারেন। তার সঙ্গী অমিত মজুমদার ৭৪ বলে ৩৩ রান করেন।

প্রথম ইনিংসে ২২৭ বলে ১৫০ রানের হার না মানা দারুণ ইনিংস খেলা খুলনা দলনেতা নুরুল পান ম্যাচসেরার পুরস্কার।

জাতীয় লিগে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ছয়বার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে রাজশাহী বিভাগ। গেল আসরেও তারা শিরোপা জিতেছিল। তবে এবার তাদের অবনমন হয়েছে। চার দলের মধ্যে চতুর্থ হওয়ায় দলটি নেমে গেছে দ্বিতীয় স্তরে।

এদিন নিজেদের শেষ ম্যাচে রাজশাহীর শহিদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে রংপুর বিভাগের কাছে স্বাগতিকরা হেরেছে ১৫৫ রানে। সকালে ব্যাটিংয়ে না নেমে আগের দিনের ৬ উইকেটে ২২৮ রানে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে রংপুর। তাতে রাজশাহী পায় ২৪৯ রানের লক্ষ্য। কিন্তু তারা গুটিয়ে যায় মাত্র ৯৩ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ঢাকা বিভাগ প্রথম ইনিংস: ২৭৯

খুলনা বিভাগ প্রথম বিভাগ: ৩৭৯

ঢাকা বিভাগ দ্বিতীয় ইনিংস: (আগের দিন ১০২/৫) ৮৬.৩ ওভারে ২১৬ (রকিবুল ৯৯, আরাফাত ৫৩, অনিক ০, নাজমুল ০, শহিদ ০*; জিয়াউর ৫/৪৪, রুবেল ০/৩, মইনুল ১/৪০, নাহিদুল ২/৭৪, টিপু ০/৩৭, রবিউল ০/৬)

খুলনা বিভাগ দ্বিতীয় ইনিংস: (লক্ষ্য ১১৭) ২৫.৪ ওভারে ১১৭/১ (এনামুল ৭৯*, রবিউল ২, অমিত ৩৩*; নাজমুল ১/৪৯, শুভাগত ০/২১, শহিদ ০/১৯, উত্তম ০/১৬, মজিদ ০/১০)

ফল: খুলনা বিভাগ ৯ উইকেটে জয়ী।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ