জাতীয় সংসদ বহাল রেখে আগামী নির্বাচন হবে: সিইসি

জাতীয় সংসদ বহাল রেখে আগামী নির্বাচন হবে: সিইসি

সংবিধান অনুযায়ী জাতীয় সংসদ বহাল রেখে আগামী নির্বাচন হবে- এ জন্য নির্বাচনী আচরণবিধিতে সংশোধনী আনার প্রয়োজন হলে সে বিষয়টিও ভেবে দেখবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)—বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা।

শনিবার প্রেস ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) আয়োজিত তিন দিনব্যাপী এক প্রশিক্ষণ কর্মশালার সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সব রাজনৈতিক দল নির্বাচনে অংশ নেবে-এ প্রত্যাশা ব্যক্ত করে সিইসি বলেন, জাতীয় নির্বাচনে এখনও ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়নি।

সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠান কমিশনের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ— উল্লেখ করে তিনি বলেন, সব রাজনৈতিক দলের অংশ গ্রহণ ছাড়া নির্বাচন সুষ্ঠু হয় না। সংসদ বহাল রেখে নির্বাচন হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবুয়াল হোসেন বলেন, ‘নির্বাচনের আগে সাংবাদিকদের এ প্রশিক্ষণ অত্যন্ত সময়োপযোগী। নির্বাচন অনুষ্ঠানে প্রশাসন, পুলিশ, ম্যাজিস্ট্রেটসহ প্রশাসনযন্ত্রের সঙ্গে সাংবাদিকদেরও দায়িত্ব আছে। সঠিক প্রতিবেদনের মাধ্যমে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন আয়োজন সাংবাদিকরা সহযোগিতা করতে পারে।’

পিআইবির মহাপরিচালক শাহ আলমগীর সভাপ্রধানের বক্তব্যে বলেন, ‘সাংবাদিকরা রাষ্ট্রের ওয়াচডগ হিসেবে কাজ করে। সংসদে শক্তিশালী বিরোধী দল না থাকলে গণমাধ্যমকেই সে ভূমিকা পালন করতে হয়। গণমাধ্যম, গণতন্ত্র এবং রাষ্ট্রকে একসঙ্গেই চলতে হয়।’

তিন দিনব্যাপী ‘নির্বাচন বিষয়ক রিপোটিং’ প্রশিক্ষণের শেষ দিনে প্রথম শ্রম আদালতের চেয়ারম্যান ড. মো. শাহজাহান, ইসির সাবেক অতিরিক্ত সচিব জেসমিন টুলী, যুগ্ম সচিব এসএম আসাদুজ্জামান, সিনিয়র সাংবাদিক আশিস সৈকত প্রশিক্ষক হিসেবে অংশ নেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট