জীবিত না মৃত, ফের ধোঁয়াশা আইএস নেতা আবু বকর আল বাগদাদিকে ঘিরে।

জীবিত না মৃত, ফের ধোঁয়াশা আইএস নেতা আবু বকর আল বাগদাদিকে ঘিরে।

দিন কয়েক আগেই সিরিয়ায় বাগদাদির মৃত্যু হয়েছে বলে দাবি করেছিল একটি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন। সে সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়ে আজ ইরাকের কুর্দ বাহিনীর এক নেতা জানিয়ে দিলেন, বেঁচে আছেন আইএস কম্যান্ডার। সিরিয়ার রাকা শহরের দক্ষিণে কোথাও গা ঢাকা দিয়ে রয়েছেন তিনি।

সোমবার একটি সাক্ষাৎকারে ইরাকের কুর্দ বাহিনীর সন্ত্রাসবাদ বিরোধী নেতা লাহুর তালাবানি বলেছেন, ‘‘আমরা ৯৯ শতাংশ নিশ্চিত বাগদাদি বেঁচে আছেন। আমাদের কাছে নির্দিষ্ট তথ্য রয়েছে এই বিষয়ে। ভুলে গেলে চলবে না ইরাকে আল কায়দার আমল থেকেই কিন্তু বাগদাদি রয়েছেন। এখনও নিরাপত্তা বাহিনীর চোখে ধুলো দিয়ে লুকিয়ে রয়েছেন তিনি। ’’

ইরাক থেকে সিরিয়া, একের পর এক শক্ত ঘাঁটি হাতছাড়া হয়ে যাওয়ায় সম্প্রতি কোণঠাসা হয়ে পড়েছে আইএস। তিন বছরের লড়াই শেষে গত সপ্তাহেই মসুল শহর আইএসমুক্ত বলে ঘোষণা করেছে ইরাকের সরকারি বাহিনী। অন্য দিকে, সিরিয়ার রাকাতেও জমি হারাচ্ছে জঙ্গি সংগঠনটি। তালাবানির মতে, এই পরিস্থিতিতে কৌশল বদলোনোর চেষ্টা করছে ইসলামিক স্টেট। যদিও তিনি মনে করছেন, আইএসের মেরুদণ্ড এখন এতটাই নড়বড়ে যে কৌশল বদলিয়েও বিশেষ ফল হবে না। তিন থেকে চার বছরের মধ্যে ইসলামিক স্টেট নামে আলাদা করে কোনও জঙ্গি সংগঠনের অস্তিত্ব থাকবে না। আর তখন আল কায়দার সঙ্গে মিশে যাবে ইসলামিক স্টেট। তাঁর মতে ইরাকের প্রাক্তন একনায়ক সাদ্দাম হুসেনের অধীনে কাজ করা গোয়েন্দা কর্তারাই হবেন আইএসের পরবর্তী নেতা।

বাগদাদির মৃত্যু নিয়ে বহু বার বহু জল্পনা ছড়িয়েছে। জুনে মার্কিন সেনা জানিয়েছিল, বাগদাদি বেঁচে আছেন এমন কোনও প্রমাণ নেই। সেই মাসেরই মাঝামাঝি রাশিয়াও জানায়, রাকা শহরে রুশ বিমানহানায় মৃত্যু হয়েছে বাগদাদির। সিরিয়ায় কাজ করে এমন একটি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনও সম্প্রতি জানিয়েছে আইএস কম্যান্ডারের মৃত্যুসংবাদ। সংগঠনটি জানিয়েছে, সিরিয়ার পূর্বে দেয়া আল জোরের আইএস নেতৃত্বই তাদের এই খবর জানিয়েছে। মৃত্যুর আগে শেষ কয়েক মাস বাগদাদি এখানেই ছিলেন। যদিও কী ভাবে তাঁর মৃত্যু হয়েছে, তা বলতে পারেনি সংগঠনটি।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট