ডায়ানার ভিডিও টেপ সম্প্রচার ঠেকাতে চান ঘনিষ্ঠরা

ডায়ানার ভিডিও টেপ সম্প্রচার ঠেকাতে চান ঘনিষ্ঠরা

নিজের দেহরক্ষীর সঙ্গে পালিয়ে যেতে চেয়েছিলেন যুবরানি ডায়ানা! তাঁর ব্যক্তিগত একটি ভিডিও রেকর্ডিং থেকে সেই তথ্যই মিলেছে। ১৯৯২-৯৩ সালে কেনসিংটন প্যালেসে ডায়ানার কণ্ঠ প্রশিক্ষক (ভয়েস কোচ) পিটার সেটেলেনের সঙ্গে কথোপকথনের সময়ে এই তথ্য রেকর্ড হয়েছিল। আগামী সপ্তাহে একটি ব্রিটিশ চ্যানেলে সেটি প্রথম সম্প্রচার করা হবে।

এদিকে এই রেকর্ডিং সম্প্রচার না করার অনুরোধ জানিয়েছেন ডায়ানার এক বন্ধু ও ভাই আর্ল স্পেনসার। তাঁর মতে, এটা ব্রিটিশ রাজকুমার উইলিয়াম এবং হ্যারির পক্ষে সুখপ্রদ হবে না। ’’

এক ব্রিটিশ দৈনিক ইতিমধ্যেই ওই টেপের যে অংশবিশেষ প্রকাশ করেছে তাতে রয়েছে দেহরক্ষী ব্যারি ম্যান্নাকির সঙ্গে ডায়ানার প্রেমের সম্পর্কের কথা।

ক্যামিলা পার্কার আর যুবরাজ চার্লসের প্রেম নিয়ে রাজ দম্পতির মধ্যে যে কথা হয়েছিল, ডায়ানার মুখে উঠে এসেছে। ডায়ানা বলেছিলেন, ‘‘২৪-২৫ বছর বয়স তখন আমার। গভীর প্রেমে পড়েছিলাম। সব ছেড়ে চলে যাব ভেবে খুশি ছিলাম। ব্যারিও বলত, এটা দারুণ ভাবনা। ’’ অপরদিকে

প্রিন্সেস অব ওয়েলসের স্বীকারোক্তি, ‘‘মনে হতো, কেউ একটা বলুক, আমি ঠিক আছি। কারণ আমি এই ঘরটায় (কেনসিংটন প্যালেসে) চিৎকার করতাম। ব্যারি আমাকে মানসিক দিক থেকে বাইরে নিয়ে যেতে সাহায্য করেছিল। ’’

যদিও ব্যারির সঙ্গে কোনও যৌন সম্পর্কের কথা অস্বীকার করেছেন ডায়ানা। তিনি জানিয়েছেন, তাঁদের এই প্রেম জানাজানি হতে বেশি সময় লাগেনি। তিনি বলেন, ‘‘ওঁকে বার করে দেওয়া হয়। মোটরবাইক দুর্ঘটনায় মারা যায় ব্যারি। সেটা বিরাট ধাক্কা। অসম্ভব ভাল বন্ধু ছিল ও। ’’

এদিকে এই রেকর্ডিংয়ে উঠে এসেছে যুবরাজ চার্লসের উদাসীনতার কথাও। চার্লস নাকি ডায়ানাকে বলেছিলেন, ‘‘এমন প্রিন্স অব ওয়েলস হতে রাজি নই, যাঁর একজনও রক্ষিতা নেই!’’

 

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট