ডি ককের ভয়ের কোনও কারণ নেই: ক্লাসেন

ডি ককের ভয়ের কোনও কারণ নেই: ক্লাসেন

ডি ককের চোটের কারণেই দলে সুযোগ পেয়েছেন ক্লাসেন। আর এই ক্লাসেনই কিনা এখন ডি ককের ভয়ের কারণ! শেষ ৮ ম্যাচে মাত্র ২টি জয় (সাদা বলের ক্রিকেট)। আর দু’টি ম্যাচেই জয়ের নায়ক দক্ষিণ আফ্রিকার নতুন উইকেট কিপার-ব্যাটসম্যান হেনরিক ক্লাসেন।

ডানহাতির দাপট দেখে অনেকেই মনে করছেন ক্লাসিক ক্লাসেনই না কি এখন কুইন্টন ডি ককের ভয়ের কারণ। বাঁ হাতি ডি ককের অফ ফর্মে যেভাবে পারফর্ম করছেন দাপুটে ক্লাসেন, তাতে ডি ককের কামব্যাক কঠিন হয়ে পড়বে বলেই মত ক্রিকেট বোদ্ধাদের। যদিও ক্লাসেন বলছেন, ডি ককের ভয়ের কোনও কারণ নেই।

দক্ষিণ আফ্রিকার এই আবিষ্কার প্রথম নজরে আসে পিঙ্ক ওয়ানডে-তে। একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যান্ডেলার দেশকে হোয়াইটওয়াশের যে স্বপ্ন ভারত দেখেছিল, তা একাই ভেঙে দিয়েছিলেন এই ডান হাতি। বলা ভাল, প্রোটিয়দের লজ্জার হাত থেকে বাঁচিয়েছিলেন ক্লাসেন। এবার টি-টোয়েন্টিতেও সিরিজ হারের হাত থেকে দলকে বাঁচালেন তিনিই। শুধু তাই নয়, ক্লাসেনের জন্যই লড়াইয়ে ফিরেছে গোটা দল। আর একথা মেনে নিয়েছেন খোদ ভারত অধিনায়কও। সেঞ্চুরিয়নে ক্লাসেন ঝড়েই (৩০ বলে ৬৯, স্ট্রাইকরেট ২৩০) চুরমার হয়ে যায় টানা দুই ম্যাচ জিতে ভারতের সিরিজ জয়ের স্বপ্নভঙ্গ হয়। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেন জেপি ডুমিনিও (৬৪)।

জয়ের পর ম্যাচের নায়ক বলেন, বৃষ্টির ভ্রূকুটিই তাদের রান তাড়া করতে সাহায্য করেছে। একই সঙ্গে ক্লাসেনের মতো, দলের টানা ব্যাটিং বিফলতার পরও তাঁরা এদিন ভাল ব্যাট করেছেন। সেঞ্চুরিয়নে এমন একটা ইনিংস খেলার পর ক্লাসেন বলছেন, এটা যদি আমার শেষ ম্যাচ হয়, তাহলেও আমি খুশি। আমার কেরিয়ারের জন্য এটা একটা ভাল সেট আপ।

একই সঙ্গে ডি ককের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কুইনি (কুইন্টন ডি কক) একজন বিশ্বমানের ব্যাটসম্যান। টপ ক্লাস ক্রিকেটার। ওর কোনও ভয় নেই।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট