তারেকের মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিৎ ছিল: আইনমন্ত্রী

তারেকের মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিৎ ছিল: আইনমন্ত্রী

একুশে আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ে বিএনপি নেতা তারেক রহমানের মৃত্যুদণ্ডই হওয়া উচিত ছিল বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। মামলার রায়ের পর সচিবালয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার মূলহোতা খালেদা জিয়ার বড় পুত্র তারেক রহমান। এই হামলায় জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং আওয়ামী লীগকে বাংলাদেশ থেকে একেবারে শেষ করে দেয়ার যে যড়যন্ত্র হয়েছিল, তার নায়ক ছিলেন তিনি।

এ অবস্থায় তারেক রহমানকে আজকের রায়ে যাবজ্জীবন দেয়া হয়েছে। কিন্তু আমাদের ধারণা, তার মৃত্যুদণ্ডই হওয়া উচিত ছিল। কেননা, এই হামলা কার্যকর করার জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন যারা, তাদের মৃত্যু- দেয়া হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, তাই রায়ের কাগজপত্র পাওয়ার পর আমরা চিন্তা করবো, তারেক রহমানকে এবং আরও দু’জন যাদের যাবজ্জীবন দেয়া হয়েছে, সেটার জন্য আমরা উচ্চ আদালতে গিয়ে ফাঁসির জন্য আপিল করবো কি-না।

মন্ত্রী বলেন, আজকে আমরা মনে করি বিচার পেয়েছে দেশবাসী। কোনো মামলায়ই বিচার করেনি বিএনপি। তাদের আমলে, এমনকি জিয়াউর রহমান হত্যা মামলায়ও কিন্তু তারা বিচার করতে পারেনি। বিএনপি কোন দিনই আইনের শাসন মানে না। আজকে আমরা দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করার পদক্ষেপ নিয়েছি, এখন সকল মামলার বিচার হচ্ছে।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট