তুর্কি কর্মকর্তাদের কাছে খাশোগি হত্যার প্রমাণ আছে: রিপোর্ট

তুর্কি কর্মকর্তাদের কাছে খাশোগি হত্যার প্রমাণ আছে: রিপোর্ট

সৌদি আরবের ভিন্ন মতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে সৌদি সরকার যে হত্যা করেছে তার প্রমাণ রয়েছে তুরস্কের কর্মকর্তাদের কাছে। মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট বৃহস্পতিবার রাতে এক প্রতিবেদনে একথা বলেছে।

পত্রিকাটি বলছে, তুর্কি কর্মকর্তারা তাদের কাছে থাকা খাশোগি হত্যার ভিডিও এবং অডিও ট্রাম্প প্রশাসনের কাছে পাঠিয়েছে যাতে প্রমাণিত হয় যে, ওই হত্যার সঙ্গে সৌদি সরকার জড়িত। জামাল খাশোগিকে ইস্তাম্বুল কন্স্যুলেটে সৌদি আরবের একটি নিরাপত্তা দল কীভাবে নির্যাতন করেছে এবং হত্যার পর কীভাবে টুকরো টুকরো করেছে তা ওই ভিডিওতে রয়েছে। মার্কিন কর্মকর্তারও জানিয়েছেন, ওই ভিডিওর বিষয়বস্তু সম্পর্কে ট্রাম্প প্রশাসন অবহিত রয়েছে।

রেকর্ডিংয়ের সঙ্গে জড়িত এক ব্যক্তি ওয়াশিংটন পোস্টকে বলেছেন, “আপনি তার কণ্ঠ শুনতে পাবেন এবং কয়েক ব্যক্তির আরবিতে বলছে তাও শুনতে পাবেন।” তিনি আরো বলেন, “আপনি শুনতে পাবেন কীভাবে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে, নির্যাতন করা হয়েছে এবং হত্যা করা হয়েছে।”

পত্রিকার ওই সূত্র বলছেন, “কন্স্যুলেট ভবনের ভেতর থেকে রেকর্ড করা ভয়েস বলে দিচ্ছে যে, জামাল খাশোগি ভবনের ভেতরে ঢোকার পর কী হয়েছিল।” দ্বিতীয় আরেক কর্মকর্তা বলেছেন, এ রেকর্ডিংয়ে খাশোগিকে মারধরের শব্দ শোনা যাচ্ছে।

জামাল খাশোগি হত্যার ঘটনায় যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানের নেতৃত্বাধীন সৌদি সরকার আন্তর্জাতিক কূটনীতির ক্ষেত্রে পরিপূর্ণ চাপের মধ্যে পড়েছে। যুবরাজ নিজেকে প্রগতিশীল সংস্কারক দাবি করলেও তার সমালোচনাকারীদের গুম ও হত্যার বিষয়টি এখন অনেকটা সাধারণ ঘটনায় পরিণত হয়েছে। এ নিয়ে বিদেশি নেতাদের সঙ্গে বিন সালমানের সম্পর্ক প্রশ্নের মুখে পড়েছে।

এ অবস্থায় নিউ ইয়র্ক টাইমস এবং দ্যা ইকোনমিস্টসহ বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ গণমাধ্যম ঘোষণা দিয়েছে যে, তারা চলতি মাসের শেষ দিকে তাদের রিয়াদে কার্যক্রম বন্ধ করে দেবে।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট