দেশে ৪ কোটি মানুষের কর দেয়া উচিত : অর্থমন্ত্রী

দেশে ৪ কোটি মানুষের কর দেয়া উচিত : অর্থমন্ত্রী

সারাদেশে একযোগে শুরু হলো জাতীয় আয়কর মেলা ২০১৮। ঢাকাসহ দেশের ৬৪টি জেলা এবং ১০০টি উপজেলায় মঙ্গলবার সকাল থেকে এ মেলা শুরু হয়।

মঙ্গরবার রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত জাতীয় আয়কর মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী বলেন, ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে দেশে মাত্র ১ কোটি মানুষ প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কর দেয়। সরকারের কাছ থেকে ভালো সেবা পেতে হলে কমপক্ষে ৪ কোটি মানুষকে কর দেয়া উচিত।

এমএ মুহিত বলেন, আমাদের যখন জন্ম হয় তখন আমাদের দেশে প্রায় ৭০ শতাংশ লোক গরিব ছিল। এখন আমরা বলি গরিবের সংখ্যা ২২ শতাংশ। এই ৭০ থেকে নামিয়ে আমরা ২২ শতাংশে নিয়ে এসেছি। অর্থাৎ সকলের জন্য সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। কিন্তু ২২ শতাংশ কম নয়। আমাদের দেশে ২২ শতাংশ মানে ৩ কোটি মানুষ।

‘এই ৩ কোটি মানুষকে এখন আমাদের উপরে ওঠাতে হবে। সেটাই হলো আমাদের সরকারের লক্ষ্যমাত্রা। সেটাই আমাদের জাতীয় লক্ষ্যমাত্রা।’

তিনি আরও বলেন, দেশে বর্তমান প্রত্যক্ষ করদাতার সংখ্যা ৩০ লাখ। আর পরোক্ষ কর মিলে এ সংখ্যা প্রায় ১ কোটি। কিন্তু দেশের জনসংখ্যার তুলনায় এ সংখ্যা অতি নগণ্য।

আয়কর মেলা উৎসব পরিণত হয়েছে উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, যারা এখানে কর দিতে এসেছে তাদের বিশেষভাবে অভিনন্দন। আপনারা মেলাটাকে স্বার্থক করে তুলেছেন। মেলাটা সত্যিকার অর্থেই মেলাতে পরিণত হয়েছে।

প্রথম দিনেই সকাল থেকে উৎসব মুখর পরিবেশ মেলা প্রাঙ্গণে। মূল ফটক থেকে ভেতরে প্রবেশ করতে সকাল থেকেই দীর্ঘ লাইন দেখা গেছে। হেল্প ডেস্ক ও তথ্য কেন্দ্রে করদাতাদের উপচেপড়া ভিড়।

এনবিআর চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান ও মেলার সমন্বয়ক এনবিআর সদস্য জিয়া উদ্দিন মাহমুদসহ এনবিআরের কর্মকর্তারা।

এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, মেলায় এসে সাধারণ জনগণ যেসব সুবিধা পায়, সহজে যেমন সেবা পায়, কর অফিসগুলোতেও একই রকম সুবিধা দেয়া হবে। সকাল ১০টা থেকে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত মেলা চলবে। মেলা শেষ হবে আগামী ১৯ নভেম্বর।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট