নাগরিকত্ব বিল ‘ফ্যাসিবাদী’ মোদি সরকারের এজেন্ডা

নাগরিকত্ব বিল ‘ফ্যাসিবাদী’ মোদি সরকারের এজেন্ডা

কেবল অমুসলিমদের নাগরিকত্বের সুযোগ রেখে ভারতের লোকসভায় সদ্য পাস হওয়া নাগরিকত্ব সংশোধন বিলকে সাম্প্রদায়িক পদক্ষেপ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে পাকিস্তান।

মঙ্গলবার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, এ বিল দ্বিপক্ষীয় ও আন্তর্জাতিক সব রীতিনীতি এবং মানবাধিকার পরিপন্থী। এটিকে পার্শ্ববর্তী দেশগুলোতে হস্তক্ষেপ বলেও মনে করছেন তিনি।

টুইটারে দেয়া এক বার্তায় ইমরান খান লিখেন, ভারতের লোকসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ হয়েছে। আমরা এই বিলের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। এটা আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন ও ভারত-পাক দ্বিপাক্ষিক চুক্তির বিরোধী। মোদি সরকারের বিরুদ্ধে হিন্দুত্ববাদী রাজনীতির অভিযোগ তুলে তারও সমালোচনা করেন পাক প্রধানমন্ত্রী।

ইমরান খান বলেন, এটা আরএসএসের হিন্দু রাষ্ট্র করার নকশার বর্ধিত অংশ যার পরিকল্পনা করেছে ফ্যাসিবাদী মোদি সরকার। সোমবার দিনভর লোকসভায় তর্ক-বিতর্কের পর মধ্যরাতে বিলটি পাস হয়। এতে উল্লেখ আছে– প্রতিবেশী বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে আসা কেবল অমুসলিমদের ভারতে নাগরিকত্ব দেয়া হবে।

এ বিলের মাধ্যমে বিশ্বের বৃহৎ গণতান্ত্রিক দেশ হিসেবে দাবি করা ভারতে প্রথমবারের মতো ধর্মীয় বিভাজন সৃষ্টিকারী কোন বিল পাশ হলো।

এদিকে কেবল অমুসলিমদের নাগরিকত্বের সুযোগ রেখে ভারতের পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভায় সদ্য পাস হওয়া নাগরিকত্ব সংশোধন বিলকে সাম্প্রদায়িক পদক্ষেপ হিসেবে বর্ণনা করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ধর্মীয় স্বাধীনতাবিষয়ক আন্তর্জাতিক কমিশন (ইউএসসিআইআরএফ)।

বিলটি ভারতের পার্লামেন্টের উভয়কক্ষে পাস হলে দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবি জানিয়েছে কমিশন।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট