নারায়ণগঞ্জে শিক্ষক লাঞ্ছনার তদন্ত প্রতিবেদন দায়সারাঃ হাইকোর্ট

নারায়ণগঞ্জে শিক্ষক লাঞ্ছনার তদন্ত প্রতিবেদন দায়সারাঃ হাইকোর্ট

নারায়ণগঞ্জের শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে লাঞ্ছনার ঘটনায় আইনগত পদক্ষেপ নেয়ার বিষয়ে নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার ও বন্দর থানার ওসির দেয়া প্রতিবেদন দায়সারা গোছের বলে মন্তব্য করেছে হাইকোর্ট।

ভবিষ্যতে এই ধরনের প্রতিবেদন দেয়া হলে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আদেশ দিতে আদালত কুণ্ঠাবোধ করবে না। একই সঙ্গে আগামী ৮ জুন আইনগত পদক্ষেপের বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন দেয়ার জন্য ঐ তিন কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

রোববার বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে লাঞ্ছনার ঘটনায় ডিসি, এসপি, বন্দর থানার ওসি ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদন আজ আদালতে জমা দেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোতাহার হোসেন। পরে আদালত আদেশ দেন।

দেশজুড়ে ওই ঘটনার প্রতিবাদ ও দোষীদের বিচার দাবির মধ্যেই ওই শিক্ষককে চাকরিচ্যুত করে স্কুল কর্তৃপক্ষ।

ওই ঘটনায় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানসহ যাদের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ উঠেছে, তাদের বিরুদ্ধে কেনো আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করে হাইকোর্ট। পাশাপাশি ওই ঘটনায় কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে তাও জানতে চান আদালত।

সম্পর্কিত সংবাদ
নিজস্ব প্রতিবেদক