নারী বিশ্বকাপের চতুর্থ শিরোপা জিতল ইংল্যান্ড

নারী বিশ্বকাপের চতুর্থ শিরোপা জিতল ইংল্যান্ড

 

নারী বিশ্বকাপের চতুর্থ শিরোপা জিতল ইংল্যান্ড। ফাইনালে ভারতকে ৯ রানে হারিয়েছে ইংলিশরা। ২২৯ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ২১৯ রানে অল আউট হয় ভারত।

শেষে ৬ ওভারে ২৮ রানে ৭ উইকেট, শেষ পর্যন্ত ৯.৪ ওভারে ৪৬ রানে ৬ উইকেট। প্রথম দর্শনে দুটোকে বোলিং ফিগার মনে করে তুলনা করলে প্রথম ফিগারটির পক্ষেই সকল ভোট পড়ার কথা! কিন্তু পরক্ষণে যদি বলে দেয়া যায় দ্বিতীয়টি বিশ্বকাপ জেতানো বোলিং ফিগার, আর প্রথমটি কোন দলের ব্যাটিং বিপর্যয়ের চিত্র, তখন ভুল ভাঙবে সহসাই।

আসলে দ্বিতীয়টি ইংল্যান্ডের অ্যানেয়া সরুবসোলের বোলিং ফিগার, যাতে বিশ্বকাপ উঁচিয়ে ধরেছে তার দেশ। আর প্রথমটি ভারতের দুর্ভাগ্যের চিত্রায়নের অঙ্করূপ, মুঠোয় আসা ম্যাচে শেষদিকে ৬ ওভারে ২৮ রানে ৭ উইকেট খুইয়ে বিশ্বকাপ ছুঁড়ে এসেছে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা।

লর্ডসে রোববার নিজেদের চতুর্থ বিশ্বকাপ জেতার প্রত্যয় নিয়ে নেমেছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু ব্যটিংটা ভালো হয়নি তাদের। নির্ধারিত ওভারে ৭ উইকেটে ২২৮ রানই কেবল তুলতে পারে স্বাগতিকরা। জবাব দিতে নেমে ৩ উইকেটে ১৯১ রান পর্যন্ত পৌঁছে গিয়েছিল ভারত। অ্যানেয়া সরুবসোলের শেষের ঝড়ে ৮ বল আগেই গুটিয়ে যায় তারা।

ইংল্যান্ড দুইশ পেরোনো ইনিংস গড়ে মাত্র এক ফিফটিতে। মিডলঅর্ডারে সাইভার ৫ চারে ৬৮ বলে ৫১ রান করেন। তার আগে উইনফিল্ড (২৪) ও বেউমন্ট (২৩) মিলে উদ্বোধনীতে ৪৭ রান যোগ করে ভালো শুরু এনে দেন।

ওয়ানডাউনে টেলর ৪৫ ও পরে নাইট ১ রানে ফিরলে হাল ধরেন সাইভার। তার ফেরার পর ব্রুন্টি ৩৪, গুন অপরাজিত ২৫ ও মার্শ অপরাজিত ১৪ রানের ইনিংস খেললে লড়াই করার পুঁজি পায় স্বাগতিকরা।

ভারতের হয়ে গোস্বামী ১০ ওভারে মাত্র ২৩ রানে ৩ উইকেট নিয়ে প্রতিপক্ষকে আটকে রাখার কাজটা করেন। ১০ ওভারে ৩৬ রানে ২ উইকেট নেয়া পুনম তাকে যোগ্য সঙ্গ দেন।

লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে স্মৃতি মান্দানা রানের খাতা খোলার আগেই ফিরে গেলে ধাক্কা খায় ভারত। পুনম রাউত সেখান থেকে অধিনায়ক মিতালিকে (১৭) নিয়ে ইনিংস গড়ায় মন দেন। ৩৮ রানের বেশি এগোয়নি সেই জুটি।

এরপরই ঘুরে দাঁড়ায় ভারত। সেমিফাইনালের বীর অপরাজিত ১৭১ রানের ইনিংস খেলা হারমানপ্রিত কৌরকে সঙ্গী পান লড়তে থাকা রাউত। দুজনে ৯৫ রান যোগ করে ম্যাচটা হাতের মুঠোয় আনার কাজটা সারেন। কৌর ৩ চার ও ২ ছয়ে ৮০ বলে সাবধানী ৫১ রানে ফেরেন।

রাউত তখনো ছিলেন। কৃষ্ণামূর্তিকে নিয়ে ৫৩ রানের আরেকটি জুটি গড়ে ভারতকে জয় উদযাপনের জন্য প্রস্তুত করে তোলেন। কিন্তু ৪ চার ও এক ছয়ে ১১৫ বলে ৮৬ রানের ইনিংস খেলে রাউতের ফেরার পরই পথ হারিয়ে বসে ভারত। কৃষ্ণামূর্তির ৩৪ বলে ৩৫ ও দীপ্তি শর্মার ১৪ ছাড়া বলার মত অবদান রাখতে পারেনি আর কেউই।

অ্যানেয়া সরুবসোল ৬টি উইকেট নিয়েছেন একাই। ২টি গেছে হার্টলের দখলে। বাকি দুটি রান আউট। তবে দুই পেসার ক্যাথরিন ব্রুন্টির ৬ ওভারে মাত্র ২২ রান খরচ এবং জেনি গুনের ৭ ওভারে দুই মেডেনসহ মাত্র ১৭ রান খরচ ভারতকে চেপে রাখতে বড় সহায়ক ছিল। শেষ পর্যন্ত রানরেটের ওপর পড়া ওই চাপের সঙ্গে অ্যানেয়া সরুবসোলের বোলিং-তোপ, স্বপ্নভঙ্গ ভারতের!

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট