নায়ক ও পরিচালক সাদেক খান চলে গেলেন না ফেরার দেশে

নায়ক ও পরিচালক সাদেক খান চলে গেলেন না ফেরার দেশে

রোববার ক্লাসিক বিভাগে স্মরণীয় সিনেমা “জাগো হুয়া সাভেরা”  প্রদর্শিত হলো ৬৯তম কান চলচ্চিত্র উৎসবে । ঠিক তার পর দিনই মৃত্যুবরণ করলেন সিনেমাটির প্রযোজনা সহকারী সাদেক খান।

সোমবার বেলা সাড়ে বারোটার দিকে বারিধারাস্থ নিজ বাসায় তার মৃত্যু হয়। সাদেক খান কিছু দিন ধরে বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন।

একাধারে তিনি ছিলেন নায়ক, পরিচালক, বিশিষ্ট সাংবাদিক, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, কলামিস্ট ও শিল্প সমালোচক।

অন্যদিকে তৎকালীন পূব পাকিস্তানের প্রথমদিকের চলচ্চিত্রের সঙ্গে জড়িত ছিলেন খ্যাতনামা এই ব্যক্তিত্ব। কখনো নায়ক, কখনো পরিচালক বা প্রযোজক হিসেবে দেখা গেছে তাকে।

মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের অমর উপন্যাস ‘পদ্মা নদীর মাঝি’ অবলম্বনে কবি ফয়েজ আহমেদ ফয়েজের চিত্রনাট্যে ‘জাগো হুয়া সাভেরা’ পরিচালনা করেন এজে কারদার। ১৯৫৯ সালে বিদেশি ভাষার চলচ্চিত্র বিভাগে অস্কারেজমা দেওয়া হয় ‘জাগো হুয়া সাভেরা’।

‘জাগো হুয়া সাভেরা’র মতো বাংলার গ্রামকে তুলে ধরা আরেকটি স্মরণীয় সিনেমা ফতেহ লোহানীর ‘আসিয়া’। এই দুই সিনেমার পরই নাম আসে সাদেক খান পরিচালিত ‘নদী ও নারী’র। ১৯৬৫ সালের ৩০ জুলাই মুক্তি পাওয়া সিনেমাটি পরবর্তীকালে চিত্রামোদি শিক্ষার্থীদের কাছে টেক্সট ফিল্ম হিসেবে বিবেচিত হয়।

হুমায়ূন কবিরের একই নামের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত ছবিটিতে উঠে এসেছে পদ্মা পাড়ের মানুষের জীবন সংগ্রাম। অভিনয় করেন রওশন আরা, মাসুদ, কাজী খালেক, সুভাষ দত্ত ও মুস্তাফা। প্রধান সহকারী ও শিল্প নির্দেশক হিসেবে ছিলেন বিখ্যাত চিত্রশিল্পী মূর্তজা বশীর। আবেদ হোসেন খানের সঙ্গীত পরিচালনায় গানে কণ্ঠ দেন আবদুল আলীম ও নীনা হামিদ। চিত্রগ্রহণে ছিলেন উইলিয়াম।

এছাড়া ১৫টির মতো প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ করেছেন সাদেক খান। তার প্রযোজিত সিনেমার মধ্যে রয়েছে কারওয়াঁ, ক্যায়েসে কহু।

সাদেক খানকে নায়ক হিসেবে দেখা যায় এজে কারদারের ‘দূর হ্যায় সুখ কা গাঁও’ (১৯৫৮) ও মহীউদ্দিনের ‘রাজা এলো শহরে’ (১৯৬৪) চলচ্চিত্রে।

গল্পের পটভূমি হিসেবে ‘দূর হ্যায় সুখ কা গাঁও’ পূর্ব পাকিস্তানে নির্মিত ব্যতিক্রমী একটি সিনেমা। গৌতম বুদ্ধের সময়কালে এক কুমার যুবক ভালবাসে একই গ্রামের গরীব মেয়ে কান্তিকে। ছবিটির কাহিনী লেখেন সাংবাদিক-সাহিত্যিক সৈয়দ নূরুদ্দিন। সংলাপ ও গান লেখেন ফয়েজ আহমদ ফয়েজ। সাদেক খানের বিপরীতে অভিনয় করেন ইভা। এছাড়া সিনেমাটির মাধ্যমে বড়পর্দায় পা রাখেন রানী সরকার।

সাদেক খান ১৯৩২ সালের ২১ জুন মুন্সীগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা পাকিস্তানের প্রাক্তন স্পিকার আব্দুল জব্বার খান। সাংবাদিক হিসেবেও খ্যাতনামা ছিলেন সাদেক খান।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট