পণ্যে ক্যান্সারের ঝুঁকি, জনসনকে ৩৯৫১৬ কোটি টাকা জরিমানা

পণ্যে ক্যান্সারের ঝুঁকি, জনসনকে ৩৯৫১৬ কোটি টাকা জরিমানা

বহুজাতিক কোম্পানি জনসন অ্যান্ড জনসনকে চারশ ৭০ কোটি ডলার (৩৯ হাজার ৫১৬ কোটি টাকা) ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। জনসন অ্যান্ড জনসন কোম্পানির ট্যালকম পাউডারের কারণে ওভারিয়ান ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ার অভিযোগ তোলেন ২২ নারী ও তার পরিবার।

 সে অভিযোগ আমলে নিয়ে এ জরিমানা করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার মিসৌরি আদালতের বিচারকরা ২২ নারী ও তার পরিবারকে জনসন অ্যান্ড জনসন কোম্পানিকে এ ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশ দেন আদালত।

ওই ২২ নারী জনসন কোম্পানির বেবি ও বডি পণ্যে ক্যানসারের ঝুঁকির অভিযোগ তোলেন। তারা বলেন, কোম্পানিটি এ বিষয়ে সতকর্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে।

মিসৌরি আদালতের বিচারকরা নারীদের ক্ষতির জন্য শাস্তি হিসেবে ৩৪ হাজার ৮০৭ কোটি টাকা জরিমানা করেন। এছাড়াও নারীদের ক্ষতিপূরণের জন্য জরিমানা করেন আরও ৪ হাজার ৬২৪ কোটি টাকা।

জনসন কর্তৃপক্ষ এ রায়ের প্রসঙ্গে বলেছে, এটা খুবই হতাশাজনক। আপিলের জন্য পরিকল্পনা করা হয়েছে।

এদিকে, এক নারীর আইনজীবী মার্ক লেনিয়ার বলেছেন, আদালতের বিচারের ছয় সপ্তাহ পর সেন্ট লুইসের বিচারক ইচ্ছাকৃতভাবে ক্ষতিপূরণের জরিমানা ৮ ঘণ্টার মধ্যে পরিশোধের নির্দেশ দিয়েছেন। কিন্তু শাস্তি হিসেবে জরিমানা ৪৫ মিনিটের মধ্যে পরিশোধ করার কথা।

এ আইনজীবী আরও বলেন, জনসন অ্যান্ড জনসন ৪০ বছর ধরে ট্যালকম জাতীয় পণ্যের ব্যবসা করছে। তাদের পণ্যে ক্যানসারের ঝুঁকির সতকর্তা উল্লেখ করা উচিত ছিল।

তিনি বলেন, আদালত কক্ষে তাদের স্বজনরা একে অপরকে জড়িয়ে ধরে কাঁদছিল। এটা খুব আবেগঘন দৃশ্য।

তবে জনসন অ্যান্ড জনসন তাদের এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তাদের পণ্য ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায় না।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট