পর্বত নাড়ানো যায়, লাল ফৌজকে না: দিল্লিকে ফের হুমকি চিনের

পর্বত নাড়ানো যায়, লাল ফৌজকে না: দিল্লিকে ফের হুমকি চিনের

আরও চড়া সুরে যুদ্ধের হুঙ্কার দিল চিন। নিজেদের এলাকা রক্ষা করতে চিনা বাহিনী সক্ষম কি না, সে বিষয়ে ভারত যেন কোনও ‘ভুল ধারণার’ মধ্যে না থাকে। সোমবার এই ভাষাতেই হুঁশিয়ারি দিল চিনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। মুখপাত্র উ কিয়ানের মন্তব্য, ‘‘পর্বতকে নাড়িয়ে দেওয়া সহজ, কিন্তু পিপলস লিবারেশন আর্মিকে (চিনা সেনা) নাড়ানো কঠিন।’’ সব কিছু ‘ভাগ্যের হাতে ছেড়ে দিয়ে’ ভারত যদি ‘অবাস্তব বিভ্রান্তি’র মধ্যে থাকে, তা হলে চরম ফল পেতে হবে— হুমকি চিনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের।

যে এলাকায় এখন ভারত এবং চিনের সেনা মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে, সেই ডোকলাম পুরোপুরি চিনের এলাকা বলে এ দিনও দাবি করছে বেজিং। ভারত সেখানে সেনা পাঠিয়ে মারাত্মক ভুল করেছে বলে চিনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রক এ দিন বিবৃতি দিয়েছে। মন্ত্রকের মুখপাত্র বলেছেন, ‘‘আমরা খুব কড়া ভাবেই ভারতকে বলছি, বাস্তবসম্মত পদক্ষেপ করতে, নিজেদের ভুল শুধরে নিতে, প্ররোচনা বন্ধ করতে এবং সীমান্ত এলাকায় শান্তিপূর্ণ পরিবেশ রক্ষা করতে চিনের সঙ্গে হাত মিলিয়ে কাজ করতে।’’

তিব্বতে ইতিমধ্যেই বড়সড় সামরিক মহড়া দিয়েছে চিনা বাহিনী। মহড়ার নামে তিব্বতে তারা বিপুল পরিমাণ সামরিক সরঞ্জাম এবং গোলাবারুদ নিয়ে এসেছে বলেও খবর। ছবি: রয়টার্স।

চিনের এই হুঁশিয়ারি নতুন নয়। জুন মাসের গোড়ায় ডোকলামে টানাপড়েন শুরু হওয়ার পর থেকে প্রায় রোজ ভারতকে হুমকি দিচ্ছে চিন। কখনও সরকার নিয়ন্ত্রিত সংবাদমাধ্যম হুমকি দিচ্ছে, কখনও হুমকি দিচ্ছে বিদেশ মন্ত্রক, কখনও প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। এ দিন সেই সুর আরও চড়িয়েছে বেজিং। ‘নিজেদের এলাকা’ রক্ষা করতে চিনা বাহিনী কতটা সক্ষম, তা ভারত বুঝতে পারছে না বলে চিনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের মুখপাত্র মন্তব্য করেছেন।

*রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন*
সম্পর্কিত সংবাদ
Leave a reply
ডেস্ক রিপোর্ট