পশ্চিমবঙ্গে মমতার বিশাল জয়

পশ্চিমবঙ্গে মমতার বিশাল জয়

ভারতে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে বিপুল জনসমর্থন নিয়ে ক্ষমতায় ফেরার পর রাজ্যের মানুষকে অকুন্ঠ ধন্যবাদ দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এই দিকে রাজ্যের পরবর্তী সরকার হিসেবে মসনদে বসতে যাচ্ছে মমতার দল।

২৯৪ আসনের বিধানসভায় দুই তৃতীয়াংশ আসনে এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, তৃণমূল কংগ্রেস ২২৩ আসনে জয় পেয়েছে। এছাড়া বাম-কংগ্রেস জোট ৬৩, ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) ৫ ও অন্যরা তিনটি আসনে এগিয়ে রয়েছে।

ভারতের প্রভাবশালী দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, নারদ কেলেঙ্কারিতে জড়িত নেতারাও প্রাথমিক ফলাফলে এগিয়ে রয়েছেন। নারদ কেলেঙ্কারিতে নাম আসা সুবেন্দু অধিকারি নন্দিগ্রামে এবং কলকাতা বন্দরে এগিয়ে আছেন ফিরহাদ হাকিম। সাবেক মন্ত্রী মদন মিত্র সারদা কেলেঙ্কারিতে জড়িত অভিযোগে কারাবন্দী থাকলেও কামারহাটি আসনে বিজয়ের দ্বারপ্রান্তে তিনিও।

ভবানিপুরে প্রথম পর্বের ভোট গণণার পর প্রাথমকি ফলাফলে মমতা ব্যানার্জিও নিজ আসনে ১৫ শ’ ভোটে এগিয়ে আছেন। কলকাতার মেয়র শোভন চ্যাটার্জি, মন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জি, অমিত মিত্র, জোতিপ্রিয় মল্লিকও নিজ নিজ আসনে এগিয়ে আছেন।

কলকাতায় নিজের বাসভবনে এদিন দুপুরে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি জানিয়েছেন, গত দুইবছর ধরে তার সরকারের বিরুদ্ধে লাগাতার ষড়যন্ত্র হয়েছে। মমতা ব্যানার্জি জানিয়েছেন, আগামীকাল শুক্রবার তৃণমূলের নবনির্বাচিত পরিষদীয় দলের বৈঠক হবে। বৈঠকে নির্বাচিত হবেন পরিষদীয় দলনেতা।

কালই রাজ্যপালের কাছে সরকার গঠনের দাবি জানানো হবে।

এরপর ২৭ মে শপথ নেবে নতুন মন্ত্রিসভা, ওই দিনই দ্বিতীয় দফায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন তিনি।

রাজ্যে তৃণমূলের বিপুল বিজয়ের পর পশ্চিমবঙ্গ জুড়ে বিজয় উৎসব হবে কি না, সে প্রশ্নের জবাবে মমতা ব্যানার্জি জানান ঠিক বিজয় উৎসব নয়- তবে আগামী ১০ দিন ধরে নানা ধরনের ‘সাংস্কৃতিক কর্মসূচি’ পালন হবে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট