আন্দ্রে রাসেলে শেষ ওভারে জয় ছিনিয়ে নিল কলকাতা

আন্দ্রে রাসেলে শেষ ওভারে জয় ছিনিয়ে নিল কলকাতা

শেষ ওভারে রাসেলের দুর্দান্ত বোলিং এ পঞ্জাবের বিরুদ্ধে  ৭ রানে জয় পায় কলকাতা নাইট রাইডার্স। মাঠে এসেছিলেন স্বয়ং কিং খান। এই জয় যেন তাঁকেই উপহার দিল গোটা দল। ম্যাচের পর গৌতম গম্ভীর জানালেন, এই জয়ে তিনি খুব খুশি। এই ধারাবাহিকতাকেই বজায় রাখতে চান।

টসে জিতে কলকাতাকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠান মুরলি বিজয়। ম্যাচ শুরুর আগেই তিনি মুরলি বিজয় জানিয়ে দিয়েছিলেন, “আজ কলকাতায় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আর নাইট রাইডার্স ভালো রান তাড়া করতে পারে। সেইকারণেই আমরা ওদের চাপে রাখতে চাই।” তবে আজ বৃষ্টিপাতের আশঙ্কা একেবারেই কাজে লাগেনি। শুরু থেকেই ব্যাটে ঝড় তুলতে শুরু করেন গৌতম গম্ভীর এবং রবিন উথাপ্পা।

শুরুর পার্টনারশিপ জমকালো হলে, এমনিই একটা বড় রানের ভিত তৈরি হয়ে যায়। হলও তাই। ১০ ওভারের মধ্যেই বিনা উইকেটে ৭৪ রান তুলে ফেলে কলকাতা। তবে ১৩.৩ ওভারে গম্ভীর (৫৪) ফিরে গেলেও, উলটো দিকটা ধরে রাখেন উথাপ্পা। মাঠে নামেন ইউসুফ পাঠান। ১৬.৫ ওভারে পাঠানের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝির কারণে রান আউট হয়ে ফিরে যান উথাপ্পা (৭০)। নামেন আন্দ্রে রাসেল। অবশেষে পাঠান (১৪) – রাসেল (১৭) জুটিতে ভর করে নির্ধারিত ওভারে ১৬৪ রান তোলে নাইট বাহিনী।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই তিন উইকেট হারিয়ে বেশ চাপে পড়ে যায় পঞ্জাব শিবির। স্টোয়েনিস (০), মনন ভোরা (০) এবং মুরলি বিজয় (৬)। এরপর ঋদ্ধিকে নিয়ে জুটি বাঁধেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ২৪ রানে ফিরে যান ঋদ্ধি। ততক্ষণে মাঠে উঠেছে ম্যাক্সওয়েল ঝড়। কিন্ত সেই ঝড়ে কোনও কাজ হল না। শেষদিকে পরপর উইকেট হারায় পঞ্জাব।

উলেখ্য, শেষ ওভারে রাসেলের বলে দুটি রান আউট ও একটি উইকেটের পতন ঘটলে ৭ রানের জয় পায় কলকাতা। আন্দ্রে রাসেল চার ওভারে ২০ রান দিয়ে ৪ উইকেট শিকার করেন।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট