প্রথম দল হিসেবে প্লে অফে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ

প্রথম দল হিসেবে প্লে অফে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ

এখনও দুই ম্যাচ বাকি। কোনও ঝুঁকি নিল না সানরাইজ়ার্স হায়দরাবাদ। কিংস ইলেভেন পঞ্জাবকে ৭ উইকেটে হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে প্লে অফের ছাড়পত্র পেল মুস্তাফিজের সানরাইজার্স হায়দরাবাদ । অন্যদিকে, প্লে অফে যাওয়ার সম্ভাবনা শেষ কিংস ইলেভেনের।

পাঞ্জাবের বিপক্ষে ৭ উইকেটের অসাধারণ জয় পেয়েছে হায়দ্রাবাদ, আর এই জয়ের সুবাদের শেষ চারে নিজেদের জায়গা করে নিল তারা। কিন্তু এই জয় খুব সহজে যে এসেছে তা বলা যাবেনা। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে হাসিম আমলার ৯৬ রানের ওপর ভর করে ১৭৯ রান সংগ্রহ করে পাঞ্জাব। এই রান তাড়া করতে নেমে মাত্র ২ বল হাতে রেখে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় হায়দ্রাবাদ। এই ম্যাচে ৪ ওভারে ৩২ রান দিয়ে একটি উইকেট তুলে নিয়েছেন মুস্তাফিজ।

ম্যাচ শেষ অধিনায়ক ওয়ার্নার জানালেন এই ম্যাচে তিনি বেশ চিন্তিত ছিলেন। আগের দুই ম্যাচের ব্যাটিং পারফর্মেন্স নিয়ে তিনি সন্তুষ্ট ছিলেন না আর সেই সাথে এইরকম পিচে বোলিং নিয়েও তাকে বেশ দুশ্চিন্তায় পড়তে হয়েছে। তিনি তরুন দীপাক হুদার বেশ প্রশংসা করেন সেই সাথে হাসিম আমলার ইনিংসটিরও সুনাম করেন।

পয়েন্ট টেবিলের সবার ওপরে থাকা ব্যপারটা খুব একটা সহজ কাজ না, আপনি যখন সবচেয়ে ওপরে থাকবেন তখন আপনার ওপর আরও দায়িত্ব বেড়ে যাবে। শেষ দুই ম্যাচে আমরা খুব একটা ভালো ক্রিকেট খেলতে পারিনি। আমাদের ব্যাটিংয়েও বেশ ঘাটতি ছিল।

কিন্তু আজকের ম্যাচে আমি বোলিংটা নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় ছিলাম। পিচ একটু স্লো ছিল কিন্তু তা খুব বেশী সাহায্য করেনি, আর বল ভালো মতনই ব্যাটে আসছিল। তাই একটি বোলার নির্ভর টীম হয়ায় এই পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নিতে একটু সমস্যা হয়েছে আমাদের।

তিনি আরও জানান, আমরা চেয়েছিলাম তাদের ১৬০-১৬৫ রানের মধ্যে আটকে ফেলব, কিন্তু রান যখন একটু বেশীই হয়ে গেছে ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব নিয়ে খেলতে হত। যা আমরা করেছি। দীপক হুদা বেশ ভালো একটি ইনিংস খেলেছে, অপরদিকে যুবরাজ সে আমাদের দলের স্টার খেলোয়াড়। তবে আমি হাসিম আমলাকেও সাধুবাদ দিতে চাই, সে চমৎকার একটি ইনিংস খেলেছে।

সম্পর্কিত সংবাদ
ডেস্ক রিপোর্ট